চলচ্চিত্র সংকটে ভুগছেন মিলি‘মনপুরা’খ্যাত অভিনেত্রী ফারহানা মিলি চলচ্চিত্র সংকটে ভুগছেন। ক্যারিয়ারের প্রথম ‘মনপুরা’ ছবিতে অভিনয় করে বাজিমাত করলেও মানসম্মত গল্পের অভাবে নতুন কোনো চলচ্চিত্রে তাকে দেখা যায়নি। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার জন্য মিলি এখনো ভালো গল্পের অপেক্ষায় রয়েছে। তিনি নিয়মিত চলচ্চিত্রে কাজের প্রস্তাব পেলেও চিত্রনাট্য পছন্দ না হওয়ায় তা ফিরিয়ে দিচ্ছেন।

এ প্রসঙ্গে মিলি বলেন, ‘চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা ভালো নয়। তাই ভালো গল্পের ছবিতে অভিনয় না করলে দর্শকদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাওয়া অসম্ভব। ‘মনপুরা’ ছবির পরে অনেক ছবির প্রস্তাব পেয়ে আসছি। তবে ভালো গল্পের ছবির প্রস্তাব আসেনি। এজন্য নতুন কোনো ছবিতে আর কাজ করা হয়নি। তবে মনঃপূত চরিত্র আর গল্প পেলে অবশ্যই নতুন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হব। তাছাড়া গল্পের পাশাপাশি গুণী নির্মাতা ও ভালো বাজেটের দিকটাও দেখছি। এসব কিছু ব্যাটে বলে মিলে গেলেই নতুন চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করব।’

এদিকে বর্তমানে মিলি একাধিক ধারাবাহিক নাটকের কাজ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের ‘বাক্সবন্দি’ ও হুমায়ুন ফরিদের ‘পাগলা হাওয়ার দিন’, অরণ্য আনোয়ারের ‘দহন’ এবং আলভী আহমেদের ‘শূন্য থেকে শুরু’ শীর্ষক এ ধারাবাহিকগুলা নিয়মিত বেসরকারি টেলিভিশনে প্রচার করা হচ্ছে। পাশাপাশি এসব ধারাবাহিকের নিয়মিত শুটিং করা হচ্ছে। এ ছাড়া সম্প্রতি তিনি ‘গ্ল্যামার’ শীর্ষক নতুন একটি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। এই ধারাবাহিকে তিনি প্রথমবারের মতো চলচ্চিত্র নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করছেন। এটি রচনা ও পরিচালনা করছেন সুমন আনোয়ার। এরই মধ্যে এর প্রথম পর্বের বেশকিছু দৃশ্য ধারণ সম্পন্ন হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ফারহানা মিলি বলেন, ‘এ ধারাবাহিকে আমার চরিত্রটা বেশ চ্যালেঞ্জিং। তাই এতে নিজের সেরা অভিনয়টা দেয়ার চেষ্টা করছি। এখন পর্যন্ত আমার অভিনয়ের প্রশংসাও পেয়েছি। আশা করছি, নাটকটি দর্শকদের ভালো লাগবে।’

২০০৯ সালে ‘মনপুরা’ শীর্ষক ছবিটি সারাদেশে মুক্তি পায়। এ ছবিটির মাধ্যমে রুপালি পর্দায় পদার্পণ করেন ফারহানা মিলি। গ্রামবাংলার পটভূমি নিয়ে এ ছবিটি নির্মাণ করেন গিয়াস উদ্দিন সেলিম। ২০০৯ সালে এ ছবিটি সেরা ব্যবসা সফল ছবি ছিল। এ ছবিতে মিলির বিপরীতে অভিনয় করেন জনপ্রিয় টিভি অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য