লালমনিরহাটে বাল্য বিয়ে করতে এসে বর যাত্রী আটকলালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় টংভাঙ্গা ইউনিয়নে ২ নং ওয়ার্ডের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী রোমানা আক্তার রুমি কে (১৪)  বাল্য বিয়ে করতে এসে বরযাত্রী আটক।

রোববার রাতে উপজেলার টংভাঙ্গা গ্রামের ২ নং ওয়ার্ডের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীর বাল্য বিয়ের খবরে পেয়ে অভিযান চালিয়ে বিয়ের আসর থেকে বর পক্ষের ৮ জন কে আটক করেন পুলিশ।

রাতেই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা আজিজুর রহমান ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যে ৪ জনের ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ ও ৪ জনের ১ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত।

দ্বন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা ইউনিয়নের জমগ্রামের মোনছের আলী (৬৫), মজগার আলী (৭০), বশিরুল ইসলাম (৩০),শমসের আলী (৬০), আবু হোসেন (৩৫),হামিদুল (৩০), রবিউল ইসলাম (৪৫), নুর আলম (২৮)।

পুলিশ সুত্রে জানান, হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা পুর্বপাড়া গ্রামের আজিজুল ইসলামের মেয়ে হাতীবান্ধা মহিলা মাদ্রসার ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী রোমানা আক্তার রুমি (১৪) বিয়ে আয়োজন চলছিল। বিয়ে করতে মেয়ের বাড়ীতে বর যাত্রী এসেছে এমন সংবাদের ভিত্তেতে রোববার রাতে থানা পুলিশ নিয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা আজিজুর রহমান ও হাতীবান্ধা বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ নারী ফরিদা ইয়াসমিন ফেন্সী বিয়ের আসরে গিয়ে বর যাত্রীর ৮ জন কে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। এসময় বর ও কনে পালিয়ে যায়।

পরে আটককৃতদের ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হলে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক হাতীবান্ধা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা আজিজুর রহমান বাল্য বিয়ে নিরোধ আইনে সাজা প্রদান করেন।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মতিন প্রধান জানান, দ্বন্ডপ্রাপ্তদের সোমবার সকালে জেল হাজতে প্রেরন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য