কাহারোল ডিগ্রি কলেজে শহীদ মিনার উদ্ধোধন পুরস্কার বিতরননিজস্ব প্রতিনিধিঃ ১৪ এপ্রিল বিকেলে দিনাজপুরের কাহারোল ডিগ্রি কলেজে বাংলা নববর্ষ বরণ, কলেজের শহীদ মিনার উদ্ধোধন, বার্ষিক ক্রীড়া, সাহিত্য প্রতিযোগীতা, পুরস্কার বিতরন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বর্ষশেষে নতুনের বারতা নিয়ে বাংলা নববর্ষ বাঙালির জীবনে আবির্ভূত হয়। বেজে উঠে আগমনি সুর। সে সুর নতুনকে বরণ করার, পুরাতনকে পেছনে ফেলে নব উদ্যমে আগামীকে আবাহন করার। বৈশাখ শুধু ঋতুচক্রের ধারাবাহিকতা নয় বরং বাঙালির হাজার বছরের শাশ্বত চেতনারই নাম। এটি মিশে আছে বাঙালির দৈনন্দিন কর্মে, চেতনায়, ঐতিহ্যে। আর পহেলা বৈশাখে বাঙালি সংস্কৃতির চর্চা আমাদের জাতিসত্তাকে আরও বিকশিত করবে। সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতা, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার শক্তি যোগাবে।

কাহারোল ডিগ্রি কলেজে পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোপেশ চন্দ্র রায় এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মামুনুর রশীদ চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম ফারুক চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক মো. হাফিজুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সঞ্জয় কুমার মিত্র ও কাহারোল থানার ওসি মো. মনছুর আলী সরকার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কাহারোল ডিগ্রি কলেজে অধ্যক্ষ মো. গোলাম হাসান।

পরে এক মনোজ্ঞ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শেষ করা হয়।

এদিকে বীরগঞ্জে দিন ব্যাপী বিভিন্ন কর্মসুচীর মাধ্যমে বর্ষবরন পহেলা বৈশাখ উদযাপন করা হয়েছে।  এতে অংশ গ্রহন করেন জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য