পুলিশি বাধায় সাংকৃতিক অনুষ্ঠান দেখা হলো না ফুলবাড়ী বৈশাখি মেলার দর্শকেরফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে পুলিশি বাধায় অনুষ্ঠান দেখা হলো না বৈশাখি মেলার ৩০ হাজার দর্শকের, সরকারী ঘোষনা অনুযায়ি বেলা ৫টায় পুলিশ বৈশাখি মেলার সংকৃতিক আয়োজন বন্ধ করে দেওয়ায় মেলা থেকে সংকৃতিক অনুষ্ঠান না দেখেই ফিরে আসতে হয় দর্শকদের।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় দিনাজপুরের ফুলবাড়ী বৈশাখি মেলায়। মেলায় দেখা যায় প্রতি বছরের ন্যয় এবারও ফুলবাড়ী  পৌরসভার আযোজনে উপ-শহর মাঠে সকাল থেকেই বসে, বৈশাখি মেলা। মেলায় বসে পুতুল নাছ, নাগরদোলা সহ হরেক রকমের দেশি খাবারের দোকান, রকমারী প্রসাধনিক ও খেলনার পসরা নিয়ে বসে মৈসুমী ব্যবসায়িরা। বেলা গড়ার পর রদ্দের খরতা কমতে শুরু করলে মেলায় আসতে শুরু করে ছোট বড় বিভিন্ন বয়সের হাজার হাজার দর্শক। ঘড়ির কাটায় বিকেল ৫টায় শুরু হয় বৈশাখি মঞ্চের সংকৃতিক অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি, ততক্ষনে মেলা প্রাঙ্গন উপশহর মাঠ কানায় কানায় দর্শকে ভরা।

এমন সময় মেলায় উপস্থিত হয় উপজেলা নির্বহী অফিসার এহতেসাম রেজা ও ফুলবাড়ী থানার ওসি মকছেদ আলীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ তারা বৈশাখি মেলার মঞ্চে দাড়িয়ে বলতে থাকে সরকারি নিষেধাকা থাকায় বেলা ৫টার মধ্যে বৈশাখি আয়োজন শেষ করতে হবে। তাই এখন বিকেল ৫টা হয়ে যাওয়ায় মেলাটি এখানেই বন্ধ করা হচ্ছে এবং মেলায় উপস্থিত দর্শকদেরও বাড়ী ফিরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়। এ সময় পৈর মেয়র পুনরায় ঘোষনা দেন সরকারি নিয়ম অনুযায়ি শুক্রবার ও শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলা আযোজন চলবে। ঐ সময়ের মধ্যে বৈশাখি আয়োজনও নিয়মিত চলবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এহেতেসাম রেজা বলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের নির্দেশ মোতাবেক বিকেল ৫টার পর সারা দেশে কেথাও বৈশাখি আযোজন চলা যাবে না, সে কারনেই বিকেল ৫টায় বৈশাখি মেলাটি বন্ধ করা হয়েছে। তবে তিনি বলেন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বৈশাখি মেলা চললে প্রশাসনের কোন হস্থক্ষেপ থাকবেন।

ফুলবাড়ী পৌর মেয়র মুরতুর্জা সরকার মানিক  বলেন প্রতিবারের ন্যয় এবারও নাগরিকদের নির্মল বিনোদন দেওয়ার জন্য  উপশহর মাঠে বৈশাখি মেলার আযোজন করা হয়। এজন্য বৈশাখি মেলার নিরাপত্তার সার্থে মেলা প্রাঙ্গন টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরা হয় ও নিরাপত্তা কর্মী হিসেবে ৩০ জন আনসার সদস্য নিয়োগ করা হয়। কোনবারই কোন প্রকার অপৃতিকর ঘটনা এই মেলায় ঘটেনি। কিন্তু সরকারি বিধিনিষেধের কারনেই মেলাটির সময় সূচি পরিবর্তন করতে হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য