মধ্যপাড়া রেঞ্জের ২হাজার একর বনভুমি ভুমিদস্যুদের দখলেওয়েব ডেস্কঃ দিনাজপুরের মধ্যপাড়া রেঞ্জের ২হাজার একর বনভুমি ভুমিদস্যুরা দখল করে নিলেও দেখার কেউ নেই। প্রতিদিনই দখল হচ্ছে, নতুন নতুন বনভুমি। বনভুমিতে গড়ে উঠেছে বাড়ীঘর, হাটবাজারও গাছখেকো ‘স’মিল। এসকল ‘স’মিলে কাটা হচ্ছে বনবিভাগের মুল্যবান গাছ।

মধ্যপাড়া রেঞ্জ সুত্রে জানা গেছে, ফুলবাড়ী, পার্বতীপুর ও নবাবগঞ্জ উপজেলার ৪টি বিট অঞ্চল গঠিত মধ্যপাড়া রেঞ্জ কার্যালয়। এই রেঞ্জের আওতায় আফতাবগঞ্জ বিটে ১৮০০ একর, ভবানীপুর বিটে ৮০০ একর, সদর মধ্যপাড়া বিটে ৭০০ একর ও কুশদহ বিটে ১২০০ একর বনভুমি রয়েছে। কিন্তু বর্তমানে বন আছে আফতাবগঞ্জ বিটে ৩০০ একর, ভবানীপুর বিটে ৫০০ একর, সদর মধ্যপাড়া বিটে ৪০০ একর ও কুশদহ বিটে ৬০০ একর। বাঁকী বনভুমি অধিকাংশই দখল করে নিয়েছে ভুমিদস্যুরা । কিন্তু কর্তৃপক্ষের সেদিকে কোন নজর নাই, নাই ভুমি উদ্ধারের কোনো উদ্যেগ।

বনাঞ্চলগুলো ঘুরে দেখা যায়, বনবিভাগের কোলঘেষে গড়ে উঠেছে অসংখ্যা ‘স’মিল। প্রতিদিনই ওই ‘স’মিলগুলোতে কাটা হচ্ছে বনের মুল্যবান গাছ। বনবিভাগরে জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে হাট বাজার, বাড়ীঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করে বলেন, কতিপয় অসাধু বনকর্মকর্তারা ওই সকল ‘স’মিল মালিকদের কাছে মাসোয়ারা, উৎকোচ নিয়ে থাকে। যার ফলে প্রকাশ্যোই বনের গাছ কাটে ‘স’মিল মালিকেরা।

এ বিষয়ে, রেঞ্জ কর্মকর্তা রনজিবুল আলম সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ভুমিদস্যুরা প্রায় ৪০ বছর থেকে বনের জায়গা দখল করে নিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দেয়া হয়েছে, কিন্তু মামলাগুলোর গতি ধীরে হওয়ার কারনে আইনের ফাঁকফোঁকর দিয়ে ভুমিদস্যুরা বেরিয়ে এসে আবারোও বনের জায়গা দখল করছে। বনের জায়গা উদ্ধার করতে গিয়ে অনেক বনকর্মকর্তা ভুমি দস্যুদের হাতে লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বন বিভাগের জনবল সংকটের কারনেই ভুমিদস্যুরা এই সুযোগটি নিয়েই প্রতিদিনই বনের জায়গা দখলে ও কাটছে বনের মুল্যবান কাঠ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য