ফিলিপাইনে পঞ্চম দফায় চলছে সিনেট শুনানিবাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ চুরির ঘটনায় ফিলিপাইনে সিনেট কমিটির পঞ্চম দিনের শুনানি চলছে। শুনানিতে মুখোমুখি হয়েছেন ঘটনার দুই প্রধান আলোচিত চরিত্র ব্যবসায়ী কিম অং এবং রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন আরসিবিসি’র সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক মায়া দেগুইতো।

ফিলিপাইনের দৈনিক ইনকোয়ারার এর অনলাইন সংস্করণে জানা যাচ্ছে, সকালে সিনেটের ব্লু রিবন কমিটির এই শুনানি শুরু হয়। আজকের শুনানিতে অর্থ পাচারের বিষয়ে ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষের ব্যাখ্যা জানতে চাওয়া হচ্ছে। এদিকে সিনেটের দুর্নীতিবিরোধী ব্লু-রিবন কমিটির পাশাপাশি অর্থ চুরির বিষয়ে আজ থেকে আনুষ্ঠানিক তদন্তও শুরু করেছে দেশটির বিচার বিভাগ।

রিজার্ভ পাচারের বিষয়ে এর আগের চার দফা শুনানিতে এ পর্যন্ত অভিযুক্ত হিসেবে উঠে এসেছে চীনা ব্যবসায়ী কিম অং, ওয়েক্যাং জু, উইলিয়াম গো, ফিলিপিন্স ব্যাংক আরসিবিসি’র মায়া দেগুইতো, অ্যাঞ্জেলা তোরেস ও লোরেনজো ট্যান এবং বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনকারী প্রতিষ্ঠান ফিলরেমের প্রেসিডেন্ট সালুদ বাতিস্তার নাম।

এছাড়াও চীনের দুই ক্যাসিনো অপারেটর গাও এবং দিং- অর্থ পাচারের এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলেও জানিয়েছেন চীনা ব্যবসায়ী কিম অং। এদিকে, সোমবার মায়া দেগুইতো এবং তার আইনজীবী ফার্দিনান্দ টোপাকিও’র বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছেন আরসিবিসি’র প্রেসিডেন্ট লোরেনজো ট্যান। ইতিমধ্যেই মিস দেগুইতোসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে ফিলিপাইনের এন্টি মানি লন্ডারিং কাউন্সিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য