তনুর হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে দিনাজপুর মহিলা পরিষদের স্মারকলিপি প্রদান

ছবিঃ জিন্নাত হোসেন, দিনাজপুর।

ওয়েব ডেস্কঃকুমিল্লা ভিকটরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের ছাত্রী এবং থিয়েটার কর্মী সোহাগী জাহান তনুর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম এর মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

৩০ মার্চ বুধবার দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান ও সাধারন সম্পাদক ড. মারুফা বেগম স্বাক্ষরিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর প্রেরিত স্মারকলিপিতে বলা হয় আপনি নিশ্চই ইতোমধ্যে জেনেছেন যে, কুমিল্লা ভিকটরিয়া সরকারি কলেজে ইতিহাস বিভাগের ছাত্রী এবং থিয়েটার কর্মী সোহাগী জাহান তনুকে ধর্ষন ও নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকান্ডে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ গভীর উদ্যোগ ও উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছে।

সেনানিবাসের ভিতরে নিরাপত্তা বলয়ে একজন তরুণীকে ধর্ষন করে হত্যা করা হয়েছে। আসামী এখনো গ্রেফতার হয়নি। নেতৃবৃন্দ মনে করেন নিরাপত্তা বলয়ে থেকেও এধরনের ঘটনা কি করে সম্ভব। নারীদের নিরাপত্তা কোথায়? যখন দেশে নারীরা এভারেস্ট বিজয় করছে, উন্নয়নের স্রোতধারায় নারীরা বিশেষ ভূমিকা পালন করছে, দেশ রক্ষার কাজে নারীরা নিয়োজিত রয়েছে, সেই মুহুর্তে নারীর নিরাপত্তা ভূলুন্ঠিত হচ্ছে। আসামী ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকছে। নারীরাও নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত হচ্ছে। আসামীরা দ্রুত গ্রেফতার না হলে এ ধরনের অমানবিক ঘটনা ঘটতেই থাকবে। সরকারের স্বপ্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রেও নারীদের অংশগ্রহণ সীমিত হয়ে পড়বে, উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হবে।

এই ঘটনায় তনুর পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদের নামে প্রশাসনও হয়রানি করছে। এখনও আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় তনুর পরিবারটি নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে। তনুসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নারী নির্যাতন, খুন, হত্যা, ধর্ষণের ঘটনা গোটা সমাজ ও রাষ্ট্রকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। তনুর পরিবার ও সকল নির্যাতিত পরিবারের হয়রানি বন্ধ করে নিরাপত্তা প্রদান, অবিলম্বে সুনির্দিষ্ট আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী জানাচ্ছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

স্মারকলিপি প্রদানকালে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য