Kurigram Map2২৬ মার্চ কুড়িগ্রামের রাজারহাটে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে পতাকা উত্তোলনের সময় কিছু অতিউৎসাহী দর্শক জুতা-সেন্ডেল পায়ে মীরইসমাইল হোসেন ডিগ্রী কলেজের শহীদ মিনারের উঠে অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। যেখানে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পতাকা উত্তোলন করা হয় সেখানেই এসব কর্মকান্ড ঘটছে প্রতিনয়িত।

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সম্পর্কে ধারনা না থাকার কারনে এসব ঘটনা ঘটছে অহরহ। পাঠ্য পুস্তুকে শহীদ ব্যদিকে অবমাননা করার বিষয়ে আলোচনা থাকলেও তা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা না করার কারনে কমলমতি শিক্ষার্থীরা স্বাধীনতার তাৎপর্য হারাতে বসেছে। ফলে তারা শহীদদের প্রতি বিনম্রতা দেখাচ্ছেন। শুধু ১৬ডিসেম্বর বিজয় দিবস, ২৬মার্চ স্বাধীনতা দিবস নয়, কখনই শহীদ মিনারে জুতা কিংবা সেন্ডেল পায়ে দিয়ে উঠলে ধৃষ্টতা ছাড়া কিছু নয়।

শহীদদের প্রতি সর্বদাই সম্মান প্রদর্শন করা উচিত। এটা ব্যতিরেকে তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা উচিত বলে সচেতন মহল মনে করেন। এব্যাপারে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল মোতালে জানান, শহীদদের কারনে স্বাধীনতা পেয়েছি। তাই সর্বদাই শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা উচিত।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য