দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সন্মেলনওয়েব ডেস্কঃ মোটরসাইকেল চোরের সহযোগীকে আটক করে পাবর্তীপুর মডেল থানায় সোর্পদ করলেও তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আব্দুল মতিন এর বিরুদ্ধে মোটর সাইকেল উদ্ধারে তৎপর না হওযার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মোঃ জুয়েল ইসলাম।

সোমবার দুপুরে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে পাবর্তীপুরের মন্মথপুর দাঁড়ামপাড়া গ্রামের মোঃ মোকবুল হোসেনের পুত্র মোঃ জুয়েল ইসলাম সংবাদ সম্মেলন করেন।

তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ১৫ ডিসেম্বর ভোর ৫টার দিকে ডিস্কোভারি- ১৩৫ সিসি মোটরসাইকেলটি বাড়ী থেকে চুরি হয়। খুঁজাখুঁজি করে না পেয়ে পাবর্তীপুর থানায় অভিযোগ ও পরবর্তিতে মামলা দায়ের করা হয়। এক পর্যায়ে গত ১৫ জানুয়ারী পাবর্তীপুরের সোনাপুকুর চাকলা গ্রামের মোঃ আনিসুর রহমান আনিস মোবাইল ফোনে জানায়, ৬০ হাজার টাকা দিলে মোটরসাইকেলটি ফেরৎ দেওয়া হবে। উক্ত টাকা নেওয়ার জন্য কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী থানার ছোট খাটামারি গ্রামের মৃত আহমদ আলীর পুত্র মোঃ ছমির মিয়াকে আমার নিকট প্রেরন করে। অতঃপর আমি ছমির মিয়াকে আটক করে পাবর্তীপুর থানায় সোপর্দ করি।

তিনি জানান, মোবাইল ফোনে আনিসুরের কথাপোকথনের রেকর্ড ও মোবাইল নাম্বার এজাহারের মাধ্যমে পাবর্তীপুর থানাকে অবগত করেছি। পরে জানতে পারি যে, ছমির মিয়াকে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় আটক না দেখিয়ে অন্য মামলায় চালান করে থানা কর্তৃপক্ষ। পরে পুলিশকে বিষয়টি জানালে মোটরসাইকেল চুরি মামলার আসামী করে একটি মামলা রেকর্ড করে। যার মামলা নম্বর ২২/২২ তাং ১৯-০১-১৬ইং। ইতোমধ্যে চুরির মূল হোতা আনিসুর রহমান আনিস অন্য একটি মামলায় আটক হয়।

তিনি লিখিত বক্তব্যে জানান, তদন্তের প্রয়োজনে এসআই আব্দুল মতিন আমার বাড়ীতে আসেন। আমাকে তিনি বলেন, আপনার সাথে গভীর নলকূপ ও মোটর নিয়ে যাদের বিবাদ রয়েছে তারাই আপনার মোটরসাইকেল চুরি করিয়েছে। যেটা গেছে সেটা কিছুই না, আপনি এক বাপের এক ছেলে, বেঁচে থাকলে ১০/২০টা মোটরসাইকেল কিনতে পারবেন। এসআই আব্দুল মতিন আমাকে বলেন, এমন কিছু ঘটনা ঘটে যা দেখেও এড়িয়ে যেতে হয়।
জুয়েল আরো জানায়, এসআই আব্দুল মতিনের কথায় মামলা থেকে আমাকে নিরুৎসাহিত করার ইঙ্গিত ছিল। পরবর্তিতে এসআই আব্দুল মতিনকে ফোন করলে পরে দেখা করব বলে ফোনের সংযোগ বিছিন্ন করে দেয়।

সংবাদ সন্মেলনে মোঃ জুয়েল ইসলামের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন জুয়েল ইসলামের পিতাঃ মকবুল হোসেনসহ নুর আলম, আনোয়ার হোসেন, নজমুল ইসলাম ও ইয়াসিন  আক্তার।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য