গাইবান্ধায় গুপ্তধন দেয়ার কথা বলে দেড় লক্ষাধিক টাকা প্রতারণাআরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গুপ্তধন হিসেবে সোনার মোহর প্রদানের কথা বলে ইট পাথর ভর্তি হাড়ি দিয়ে দেড় লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা করেছে আয়শা বেগম নামে এক মহিলা প্রতারক। এই প্রতারণার ঘটনা ঘটে জেলা শহরের পূর্বকোমরনই কুঠিপাড়া এলাকায়।

জানা গেছে, ব্রীজ রোড একোয়াস্টেট পাড়ার মৃত নজরুল ইসলামের স্ত্রী আয়শা বেগম (৬০) নামের এক প্রতারক পূর্বকোমরনই কুঠিপাড়ার অসহায় মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী মাজেদা বেগমকে গুপ্তধনে সোনার মোহর ভর্তি হাড়ি প্রদানের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে দেড় লক্ষাধিক টাকা গ্রহণ করে।

একপর্যায়ে মাজেদা বেগমের স্বামীর সন্দেহের সৃষ্টি হলে তাড়াতাড়ি গুপ্তধন প্রদান অথবা টাকা ফেরত দেয়ার জন্য প্রতারক ওঝার কাছে চাপ সৃষ্টি করা হয়। অতঃপর সে রোববার রাতে কাপড় দিয়ে বাঁধা ৩টি সিলভারের হাড়ি ও ২টি টিনের বিস্কুটের কার্টুন মাজেদা বেগমের বাড়িতে দিয়ে যায় এবং সবার কাছে বিষয়টি গোপন রাখতে পরামর্শ দেয় প্রতারক আয়শা বেগম।

এরপর সে রাতে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। সোমবার সকালে ওই সিলভারের হাড়ি ও  টিনের বিস্কুটের কার্টুন খুললে তার মধ্যে ছোট বড় সিমেন্ট মিশানো ইট পাথরের টুকরো পাওয়া যায়।

এই প্রতারণা ঘটনায় পূর্বকোমরনই কুঠিপাড়া এবং একোয়াস্টেটপাড়া এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এবং কৌতহলী মানুষ এই ভুয়া গুপ্তধন দেখতে মাজেদা বেগমের বাড়িতে ভিড় জমায়। এদিকে এ ঘটনায় প্রতারণার শিকার মাজেদা বেগম তার স্বামীর নির্যাতনেরও শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে। উলে¬খ্য, প্রতারক আয়শা বেগম তার ছোট বোন জামাই মুকুলের বাড়িতে বসবাস করে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য