রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক গ্রেফতারআন্তর্জাতিক ডেস্কঃ রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে ভারতের দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ও কাশ্মিরি বুদ্ধিজীবী এস এ আর গিলানিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। দিল্লিতে প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ায় আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দেশবিরোধী স্লোগান ওঠার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করা হয়েছে।

দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকে গতরাতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়ার পরে আজ (মঙ্গলবার) ভোর তিনটা নাগাদ তাকে গ্রেফতার করা হয়। অধ্যাপক গিলানির বিরুদ্ধে ১২৪এ/১৪৯/১২০ বি ধারায় অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ। আজ তাকে দিল্লির পাটিয়ালা হাউস আদালতে হাজির করা হবে।

দিল্লি প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়াতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে অধ্যাপক গিলানিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রেস ক্লাবে গত ১০ ফেব্রুয়ারি এক অনুষ্ঠানে কিছু লোক সংসদ হামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আফজাল গুরুর সমর্থনে স্লোগান দেয় বলে অভিযোগ ওঠার পরে অধ্যাপক গিলানি এবং অন্য অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। ওই অনুষ্ঠানের প্রধান আয়োজক হিসেবে গণ্য করে গিলানিকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশের এক সিনিয়র কর্মকর্তা গ্রেফতারের কথা নিশ্চিত করে বলেন, ‘গিলানিকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তাকে সংসদ মার্গ থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।’

দিল্লির জওহরলাল বিশ্ববিদ্যালয় বা জেএনইউতে দেশবিরোধী তৎপরতার অভিযোগে আগেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট কানহাইয়া কুমারকে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশজুড়ে ব্যাপক তোলপাড় চলার মধ্যেই এবার সাবেক অধ্যাপক এস এ আর গিলানিকে দেশদ্রোহের অভিযোগে গ্রেফতার করল পুলিশ।

এর আগে,  ২০০১ সালে সংসদ হামলা মামলায় অধ্যাপক গিলানিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। যদিও দিল্লি হাইকোর্ট ২০০৩ সালে তাকে সাক্ষী প্রমাণের অভাবে রেহাই দেয়। ২০০৫ সালে সুপ্রিম কোর্টও ওই রায় বহাল রাখে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য