বন্দুকযুদ্ধনীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ‘ডাকাতদের হামলায়’ দুই র‍্যাব সদস্য গুরুতর আহত এবং গুলিবিদ্ধ দুই সহোদর ‘ডাকাত’ আটক হয়েছে। আটক মো. আলী (৫৫) ও আজাদ মিয়া (৪০) পানিয়াল পুকুর ইউনিয়নের কসির উদ্দিনের ছেলে।

র‍্যাব-১৩-এর সিপিসি-২ নীলফামারী ক্যাম্পের কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, ডাকাতদের হামলায় র‍্যাবের দুই এসআই গুরুতর আহত এবং দুই ডাকাতকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করা হয়েছে। এখনও অভিযান চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, অভিযান শেষ হলে সাংবাদিকদের জানানো হবে।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রিয়াসাদ বলেন, দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে হাতে ও পায়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মো. আলী ও আজাদ মিয়া নামের দুই ব্যক্তিকে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন র‍্যাব সদস্যরা।

“একই সময় শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রে জখম হওয়া র‍্যাব সদস্য রুস্তম আলী ও সোহান হোসেনকে আনা হয়।”পরে চারজনকেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে র‍্যাব সদস্যরা নিয়ে যান বলে জানান এই চিকিৎসক।

র‍্যাবের একটি সূত্র বলছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই অস্ত্র বিক্রেতা ও ডাকাতকে ধরতে ক্রেতা সেজে টাকা নিয়ে র‍্যাবের একটি দল কালিকাপুর গ্রামের কাউয়ার মোড়ে যায়।

“এ সময় ডাকাত সহোদর মো. আলী ও আজাদ মিয়ার নেতৃত্বে পাঁচ-সাত জনের একটি দল ছদ্মবেশে থাকা এসআই রস্তুম আলী ও সোহান হোসেনের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে তাদের সাথে থাকা টাকা ও অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে।

“এ সময় র‍্যাব সদস্যরা তিন রাউন্ড গুলি ছুড়লে মো. আলীর (৫৫) পায়ে ও আজাদ মিয়ার (৪০) হাতে গুলিবিদ্ধ এবং ডাকাতদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এসআই রুস্তম ও সোহান গুরুতর আহত হন।”
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য