সৈয়দপুরে রেলওয়ের উচ্ছেদকৃত জায়গা আবারও দখলকারদের কবলেউচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে সৈয়দপুরে রেলওয়ের জায়গা উদ্ধারের পর উদ্ধারকৃত জায়গায় আবারও নতুনভাবে অবৈধ মার্কেট নির্মাণ করা হচ্ছে। অভিযোগ উঠেছে, সরকার দলীয় প্রভাবশালী রাজনীতিক ও রেল বিভাগের সৈয়দপুরে কর্মরত এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তা রেলওয়ের জায়গায় ওই মার্কেট নির্মাণের সাথে জড়িয়ে পড়েছেন।

এ ঘটনায় এলাকায় নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, গত বছরের ১৮ ও ১৯ মার্চ জেলার সৈয়দপুরে দুই দিনব্যাপী রেলওয়ের জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম চালানো হয়। উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের তৎকালীন বিভাগীয় ভূসম্পত্তি কর্মকর্তা মোস্তাক আহমেদ।

এ সময় নীলফামারী জেলা প্রশাসনের একজন ম্যাজিষ্টেট, পুলিশ প্রশাসনের এসপি সার্কেলসহ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার ডিএস নুর আহমেদ ও সৈয়দপুর রেলওয়ে পুলিশ উচ্ছেদ অভিযানে সহায়তা করেন। উচ্ছেদের পর সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনের সামনে এবং পিছনের জায়গায় পিডাব্লুু কর্মকর্তা আব্দুল মতিনকে ও সৈয়দপুর শহরের ক্যান্টনমেন্ট রোডস্থ ১১০নম্বর বাংলোর সামনে এবং আইওডাব্লু কর্মকর্তা তহিদুল ইসলামকে ডান পার্শ্বের জায়গা বুঝিয়ে দেয়া হয়।

পিডাব্লুকর্তৃপক্ষ উদ্ধারকৃত জায়গাগুলি সুরক্ষিতভাবে ঘিরে রাখে। কিন্তু ১১০নম্বর বাংলোর সামনের বাসা বাড়ীর জায়গা ধীরে ধীরে ফের অবৈধ দখলদারদের হাতে চলে যাচ্ছে। সেখানে ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে একের পর এক মার্কেট। সেখানে কয়েকদিন ধরে অবৈধ দখলদাররা পাকা ঘর নির্মাণ করেছে। এ ব্যাপারে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ নিরব ভূমিকা পালন করছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য