আমেরিকাকে ৫০ পরমাণু বোমার প্লুটোনিয়াম দেবে জাপানআন্তর্জাতিক ডেস্কঃ আমেরিকায় ৫০ পরমাণু বোমা তৈরির উপযোগী প্রায় ৩৩০ কিলোগ্রাম প্লুটোনিয়াম পাঠাবে জাপান। গবেষণায় ব্যবহৃত তেজস্ক্রিয় পদার্থ ফেরৎ দেয়া সংক্রান্ত ২০১৪ সালের চুক্তির আওতায় এ প্লুটোনিয়াম পাঠানো হবে। ওয়াশিংটনে পরমাণু নিরাপত্তা সংক্রান্ত শীর্ষ সম্মেলনের আগে প্লুটোনিয়াম পাঠানো হবে।

মার্চের শেষ দিকে মার্কিন দক্ষিণ ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যের একটি পরমাণু স্থাপনায় এ প্লুটোনিয়াম পাঠানো হবে। জাপানের শিক্ষা দফতরের পরমাণু প্রযুক্তি শাখার এক কর্মকর্তা পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। কয়েক দশক আগে আমেরিকা, ব্রিটেন এবং ফ্রান্স এ সব উপাদান জাপানকে সরবরাহ করেছিল। বর্তমানে টোকিও’র নিউক্লিয়ার সায়েন্স রিসার্চ ইন্সটিটিউটে ব্যাপক পরিমাণ প্লুটোনিয়াম মজুদ রাখা হয়েছে।

জাপানে মজুদ প্লুটোনিয়াম নিয়ে ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক মহলে অস্বস্তি শুরু হয়। তৎকালীন জাপানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো আসো বলেছিলেন, সক্ষমতা থাকা সত্ত্বেও পরমাণু বোমা বানাবে না টোকিও। তার এ মন্তব্যের জের ধরে আন্তর্জাতিক মহলে অস্বস্তির শুরু হয়।

বিশ্বে একমাত্র জাপানেই পরমাণু বোমার হামলা হয়েছিল। ১৯৬৭ সালে গৃহীত নীতির আওতায় জাপানের মাটিতে পরমাণু বোমা বানানো বা মোতায়েনের অনুমতি দেয় না টোকিও। অবশ্য ২০১০ সালে টোকিও সরকার স্বীকার করেছে যে ওয়াশিংটনের সঙ্গে করা গোপন চুক্তির আওতায় জাপানের ওকিনওয়া দ্বীপের মার্কিন ঘাটিতে পরমাণু বোমা রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের শেষের দিকে জাপানের পরাজয় নিশ্চিত হয়ে ওঠার পরও দেশটির হিরোশিমা এবং নাগাসাকি নগরীতে আণবিক বোমা হামলা করে আমেরিকা। এতে জাপানের দুই লাখ ১০ হাজারের বেশি জাপানি নিহত হয়।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য