ছবিঃ সাহেব, দিনাজপুর।

ছবিঃ সাহেব, দিনাজপুর।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দিন যত ঘনিয়ে আসছে পৌরসভা নির্বাচনের উত্তাপ ততই বাড়ছে। উৎকন্ঠার মধ্যে রয়েছে ভোটাররা। বিএনপি, আওয়ামী লীগ ও প্রার্থীদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি অভিযোগে উতপ্ত হয়ে উঠেছে নির্বাচনী মাঠ। ভোটারদের মধ্যে শংকা ছড়িয়ে পড়েছে ভোটাধিকার প্রয়োগ নিয়ে। ডিসি অফিসে ভোট গননা হবে এমন ধরনের গুজব দিনাজপুরে ছড়িয়ে পড়েছে। আওয়ামী লীগ এ অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিনাজপুর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী কেন্দ্রীয় বিএনপির দপ্তর সম্পাদক রুহুুল কবীর রিজভীর মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, বিরামপুর পৌরসভায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী আজাদুল ইসলাম আজাদ দলীয় কোন্দলের স্বীকার বলে দাবি করেন। অথচ রিজভী এঘটনার জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করছে। তিনি ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত দাবি করে ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেন।

দিনাজপুর পৌরসভার নির্বাচনের পর ভোট গননা ডিসি অফিসে হবে এধরনের নীল নকশা করছে আওয়ামী লীগ রুহুল কবীর রিজভীর এ অভিযোগ মিথ্যাচার দাবি করে ইমাম চৌধুরী বলেন, ভোট গননা কেন্দ্রেই হবে। যারা ডিসি অফিসে ভোট গণনার কথা বলে বিভ্রান্তির চেষ্টা করছেন তারা সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিপন্থি। সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী ও আতাউর রহমান আজাদ বাবলু উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে কেন্দ্রীয় বিএনপির দপ্তর সম্পাদক রুহুল কবীর রিজভী ও জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মুকুর চৌধুরী দাবী করেছেন বিএনপির গণজোয়ারে ভীত আওয়ামী লীগ জেলায় আতংক সৃষ্টি করেছে। বিরামপুর পৌরসভার বিএনপির মেয়র প্রার্থী আজাদুল ইসলাম আজাদ আওয়ামী লীগ তথা প্রতিপক্ষের স্বীকার। পরাজয় নিশ্চিত জেনে আওয়ামী লীগ ডিসি অফিসে ভোট গননার ষড়যন্ত্র করছে।

এ ষড়যন্ত্র জনগনই রুখবে। দিনাজপুর পৌরসভার আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম (নৌকা মার্কা) বলেণ, নৌকার জোয়ার দেখে বিএনপি আতংকগ্রস্থ হয়ে পড়েছে তাই এধরনের অভিযোগ করছে। জেলা বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলমের (ধানের শীশ মার্কা) দাবি ভোট গণনা ডিসি অফিসে হবে এ আতংকে ভোটারা আতংকিত। ধানের শীশের কর্মীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হচ্ছে।

মিছিল নিষিদ্ধ তবুও খন্ড খন্ড কিন্তু নির্বাচন কমিশনার র্নিবাক। স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাফ উদ্দীনের (নারিকেল গাছ মার্কা) অভিযোগ রাজনৈতিক দল গুলোর প্রতি পৌরবাসীর আস্থা নেই। তার বিজয় সুনিশ্চিত জোয়ার দেখে দলীয় মেয়র প্রার্থীরা আচরনবিধি লঙ্ঘন করছেন। তার কর্মীদের হুমকী দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের প্রার্থীদের নানা পাল্টাপাল্টি অভিযোগ রয়েছে। পাল্টাপাল্টি অভিযোগে প্রতিটি ওর্য়াডেই উত্তাপ ও উত্তেজনা ত্রমান্বয়ে বাড়ছে।

তবে দিনাজপুর সদর উপজেলার সহকারী রির্টানিং অফিসার মাহমুদ হাসান জানান, কোন মেয়র প্রার্থীর লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। আচরনবিধি লঙ্ঘনের জন্য দুজন কাউন্সিলর প্রার্থীর বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছিল। টেলিফোনে সর্তক করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ম্যাজিষ্ট্রেট টহল দিচ্ছে আচরনবিধি লঙ্ঘন করলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সতর্কবার্তাঃ-
উক্ত বিষয়ে রিপোর্টটির কোন অংশ সংযোজন, বিয়োজন, সংশোধন, পরিবর্তন করে ব্যবহার বা অনুমতি ব্যতিত এর কোন কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ যে কোন ধরনের কপি-পেষ্ট কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে বিচার যোগ্য তবে রিপোর্টি ফেসবুকে সেয়ার করতে কোন বাধা নেই । সংবাদাতাঃ শাহারিয়ার হিরু, দিনাজপুর।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য