পৌর pauroনীলফামারীতে দুই শিশু কন্যাকে হত্যার পর গলায় দড়িয়ে দিয়ে আত্বহত্যা করেছে এক মা। আজ রবিবার দুপুরে ঘটনাস্থল হতে পুলিশ মা ও দুই শিশু মেয়ে সহ লাশ তিনটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছে। সন্তান হত্যাকারী মা হলেন, ফেন্সী বেগম (৩২)। দুই মেয়ে হলেন, আকলিমা বেগম (৮) ও খাদিজা বেগম (৪)। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সকালে জেলার জলঢাকা উপজেলার কাঠালী ইউনিয়নের দেশীবাড়ী আশ্রয়ন প্রকল্পে। প্রাথমিকভাবে এ তথ্য পাওয়া গেলেও হত্যা ও আত্বহত্যার কোন কারন জানা যায়নি। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছেন। এ ঘটনায় পুলিশ হত্যার শিকার শিশু কন্যা দুটির পিতা ও নিহত ফেন্সী বেগমের স্বামী আশরাফ আলীকে আটক করেছে। জানা যায়, ওই আদর্শ গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর আশরাফ আলী ক্ষেতে কাজ করার জন্য সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। সকাল নয়টার দিকে তার দুই মেয়ে আকলিমা বেগম (৮) ও খাদিজা বেগমর (৪) লাশ শয়ন কক্ষে এবং আশরাফ আলীর স্ত্রী ফেন্সী বেগমের লাশ গলায় দড়ি দিয়ে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলতে দেখে এলাকাবাসী। পরে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। লাশ ঝুলন্ত দেখে এ হত্যাকান্ডকে ঘিরে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। যেখানে আত্বহত্যার বিকল্প পথ রয়েছে। সেখানে লাশের অবস্থান ও হত্যার ধরন দেখে তারা হত্যার শিকার হয়েছে কিনা সে প্রশ্ন উঠেছে। এ ব্যাপারে জলঢাকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলওয়ার হাসান ইনাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে স্বামী স্ত্রীর কলহের জেরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটতে পারে। লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তদন্তের পর ঘটনার মুল রহস্য জানা যাবে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আশরাফ আলীকে আটক করেছে পুলিশ।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য