Dinajpur pic (01) 30-11-2015নিজস্ব প্রতিনিধি ॥ ১৭টি সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয়ে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত সম্মেলনে উভয় পক্ষ একমত হয়ে শিঘ্রই সমস্যা সমাধানের উপর গুরুত্বারোপ করেছেন।

সোমবার সকাল ১১টায় দিনাজপুরের পর্যটন মোটেলের মিলনায়তনে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত আলোচনায় অংশগ্রহণকারী দুদেশের কর্মকর্তারা একথা জানান। বাংলাদেশের পক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোঃ জাহাঙ্গীর কবির ও ভারতের পক্ষে জলপাইগুড়ির জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট পৃথা সরকার যৌথ সীমান্ত বিষয়ক বৈঠকের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন।

যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, অত্যান্ত সৌহাদ্য ও আন্তরিক পরিবেশে বাংলাদেশ ও ভারত সীমান্ত সমস্যা নিয়ে খোলা-মেলা আলোচনা করেছেন। রোববারের বৈঠকে ১৭টি বিষয়ে উভয় দেশ সমস্যা সমাধানে একমত পোষন করে যৌথ সুপারিশমালা চুড়ান্ত ক’cB0েন। সীমান্ত সংক্রান্ত সমস্যাগুলোকে চিহ্নিত করে দ্রুত সেগুলো সমাধানের জন্য উভয় দেশের সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

সীমান্তে যে কোন ধরনের সমস্যার উদ্ভব হলে বিএসএফ-বিজিবি যথাসম্ভব পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তা নিরসন করবেন। অবৈধ অনুপ্রবেশ বন্ধ, মাদক ও অবৈধ অস্ত্র পাচার রোধ, সীমান্তে হাট-বাজার স্থাপন, সীমান্ত সীমানা পিলার সংস্কার ও পুনসংস্কারের ব্যাপারে যৌথ জরিপ পরিচালনা, উভয় দেশের সিএস রেকর্ড হস্তান্তর, মানব পাচার রোধ এবং বন্দী বিনিময় বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বৈঠকে বলা হয় অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে সাজা ভোগ শেষে অনেক বন্দী অহেতুক কারাগারে বন্দী থাকেন। তাদের ব্যাপারে উভয় দেশ খোজ-খবর নিয়ে যথাসময়ে বন্দী প্রত্যার্পন করবেন। দক্ষিণ দিনাজপুর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের সিএস রেকর্ড অবিলম্বে উভয় দেশ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে হস্তান্তর করবেন বলে বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতা পৃথা সরকার রোববারের বৈঠককে ফলপ্রসু ও সফল উল্লেখ করে বলেন, উভয় দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ক্ষেত্র আরো প্রসারিত ও জোরদার হবে। তিনি উভয় দেশের কর্মকর্তাদের যৌথ সীমান্ত সম্মেলনকে মিলন মেলা হিসেবে অভিহিত করে দিনাজপুরের জেলা প্রশাসনের আতিথিয়তায় মুগ্ধ বলে মন্তব্য করেন।

যৌথ সীমান্ত আলোচনায় ভারতের ৬টি জেলা কুচবিহার, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, মালদহ, উত্তর দিনাজপুর ও দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ও পুলিশ সুপারগণ অংশ নেন। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ৯টি জেলা দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, নওগাঁ, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও জয়পুরহাটের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও বিজিবি’র ব্যাটালিয়ন কমান্ডারগণ অংশ নেন।

সোমবার বিকেলে ভারতীয় প্রতিনিধিদল হিলিস্থলবন্দর দিয়ে নিজ দেশে ফিরে যান।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য