04-salman_khanবিনোদন: বক্স অফিসে ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ আয়ের দিক ধনদৌলতের বৃষ্টি নামিয়েছে। এখনও এটি আছে টপচার্টের শীর্ষে। আগের ছবি ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ গড়েছে একের পর এক রেকর্ড। ফলে বলিউডের প্রথম ও একমাত্র অভিনেতা হিসেবে বলিউড বক্স অফিসে এক বছরে ৫০০ কোটি রুপি আয়ের অনন্য নজির গড়লেন সালমান খান।

একই বছরে দুটি হিট ছবি উপহার দেওয়ার দৃষ্টান্ত এর আগেও দেখিয়েছেন সালমান। ২০১২ সালে তার ‘এক থা টাইগার’ (১৯৮ কোটি ৭৮ লাখ) ও ‘দাবাং টু’র (১৫৫ কোটি) আয় মিলিয়ে জড়ো হয়েছিলো ৩৫৩ কোটি ৭৮ লাখ রুপি। আর গত বছর ‘জয় হো’ (১১৬ কোটি) ও ‘কিক’-এর (২৩০ কোটি ৬৯ লাখ) মোট আয়ের পরিমাণ ৩৪৬ কোটি ৬৯ লাখ রুপি। এ বছর ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ (৩২০ কোটি ৩৪ লাখ) ও ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’র (১৯৩ কোটি ২২ লাখ) আয় মিলিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫১৩ কোটি ৫৬ লাখ রুপি।

চলতি বছরের দুটি ছবির আয়ের সুবাদে সালমান নিজেরই রেকর্ড ভাঙলেন। আশা করা হচ্ছে, ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’র অব্যাহত ব্যবসায়িক সাফল্য ৪৯ বছর বয়সী এই অভিনেতার নামের পাশে আরও ৫০ কোটি মিলিয়ে সাড়ে ৫০০ কোটি রুপি লিখে দেবে। আগামী বছর শাহরুখ খানের দুটি ছবি আসবে। দেখা যাক, তিনি সল্লুর রেকর্ড ভাঙতে পারেন কি-না।

অন্যদিকে অভিনেত্রীদের মধ্যে এক বছরে সর্বোচ্চ ৬৩২ কোটি ৪৮ লাখ রুপি আয় করেছে দীপিকা পাড়ুকোনের ছবি। ২০১৩ সালে ‘রেস টু’, ‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ ও ‘গোলিও কি রাসলীলা রাম লীলা’র মোট আয় মিলিয়ে এই নজির গড়েন তিনি।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য