বাংলাদেশকে গুডবাই জানিয়ে ছিটমহলের ৭২ অধিবাসীচোখের জলে বাংলাদেশকে গুডবাই জানিয়ে রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় কুড়িগ্রাম জেলার বাগভান্ডার সীমান্ত দিয়ে প্রথম দফায় ভারতের ট্রাভেল পাসধারী ৭২জন অধুনালুপ্ত ছিটমহলের অধিবাসী ভারতে গেল। এতে তাদের দীর্ঘ দিনের অপেক্ষার পালা শেষ হলো। শুরু হলো নতুন দেশের নতুন জীবন সংগ্রাম। হৃদয় ভাঙ্গা মন আর অশ্রুসজল চোখে অব্যক্ত উচ্চারণ‘ গুড বাই বাংলাদেশ,। তাদের বহন করে ২টি বাস এবং ১০টি মালামালের পিকআপ ভ্যান সরাসরি ভারতের অভ্যন্তরে কুচবিহার জেলার দিনহাটা থানার কৃষি খামারের অস্থায়ী আশ্রয় ক্যাম্পে যায়।

বাপ দাদার ভিটে মাটি চিরতরে ফেলে রেখে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি করে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীর অধুনালুপ্তলুপ্ত ছিটমহল দাশিয়ারছড়ার ১০ পরিবারের ৪৯ জন নারী পুরুষ ও শিশু কালিরহাট বাজারে জড়ো হয়ে তাদের মূল ভূ-খন্ড ভারতে চলে যান। সে দেশের নাগরিকত্ব গ্রহনকারী ৪৯ জন রোববার সকালে তাদের মালামালসহ কালিরহাট বাজার থেকে বাস ও ট্রাক যোগে ভূরুঙ্গামারীর বাগভান্ডার পৌছেন। একই ভাবে ভুরুঙ্গামারীর ছোট গাড়লঝোড়া’র ৫ পরিবারের ২৩জন মালামাল নিয়ে বাগভান্ডার সীমান্তে পৌঁছে।

এসময় তাদের তদারকি করেন ভারতীয় দূতাবাসের কর্মকর্তা অভিজিত রায়, ফারুক আজম ও অরুপ চক্রবর্তী। বাগভান্ডার সীমান্তে এসব ভারতীয় নাগরিকদের বিদায় অভ্যর্থনা জানান কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) রফিকুল ইসলাম সেলিম, ৪৫ বিজিবির অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল জাকির হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাব উদ্দিন, ভুরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুন ভূইয়া, ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসির উদ্দিন মাহমুদ, নাগেশ্বরী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হায়াত মোঃ রহমত উল্লাহ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল মারুফ, নবি নেওয়াজ, ওসি জিয়া লতিফ, সাবেক ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা প্রমুখ। তারা মিষ্টি খাইয়ে এবং ফুল ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী দিয়ে ৭২জন ভারতীয় নাগরিককে বিদায় জানান।

এ সময় ভারতীয় নাগরিকদের বিদায় জানাতে আসেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি মোঃ জাফর আলী, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল ইসলাম মঞ্জু মন্ডল, বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্তারুজ্জামান মন্ডল, ভুরুঙ্গামারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খোকন চৌধুরী, অধ্যক্ষ রাশেদুজ্জামান বাবু, এম এ চাষী করিম প্রমুখ।
অন্যদিকে ভারতের সাহেবগঞ্জ সীমান্তের অভ্যন্তরে তাদের এই নতুন নাগরিকদের বরণ করতে ভারতের কুচবিহার জেলার ডিএম শ্রী পিউল গানাথন, ১০১ সাহেবগঞ্জকোম্পানী কমান্ডার অনিন্দ ঘোষসহ সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম সেলিম জানান, সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা এবং কঠোর নিরাপত্তার মাধ্যমে বিলুপ্ত ছিটমহল দাশিয়ারছড়া ও ছোট গাড়লঝোড়া’র ভারতীয় নাগরিকদের ওই দেশের কুচবিহার জেলার সাহেবগঞ্জের অস্থায়ী ক্যাম্পে পৌছে দেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক খান মোঃ নুরুল আমিন জানান, ট্রাভেলপাস প্রাপ্তদের ভারতে যাওয়ার সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু যারা এখন ভারতে যেতে চায় না তাদের ব্যাপারে সরকার আনুষ্ঠানিক ভাবে সিদ্ধান্ত জানায়নি। তবে নির্দেশনা রয়েছে কাউকে ভারতে যেতে বাধ্য করা হবে না। এ অর্থে ভারতের ট্রাভেল পাসধারীরা ভারতে যেথে না চাইলে বাংলাদেশে থেকে যেতে পারবেন।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য