মেলা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসনমোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জে ॥ বীরগঞ্জে গত শুক্রবার ধর্মীয় মেলায় অশ্লীল ও নগ্ননৃত্য পরিচালনার অভিযোগে ঐতিহাসিক ঢেমঢেমিয়া কালিমেলা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন।

উপজেলার সদর থেকে ৪০ কিলোমিটার উত্তরে পলাশবাড়ী ইউনিয়নের বৈরবাড়ী মৌজায় হিন্দু ধর্মীয় এ মেলায় পুঁজা অরচনার মধ্যদিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধনের মাধ্যমে (মহিশ-ঘোড়া ও গরু সহ অন্যন্য) পশু বেচা-কেনা শেষে প্রতি বছর একমাস ব্যাপী সার্কাস, যাত্রা পালা ও ছায়াবাজী সহ যাবতীয় চিত্তবিনোদনের মনমুগ্ধকর পরিবেশে কালি মেলা (বউ-মেলা) পরিচালনা করা হয় ।

এবার হিন্দু ধর্মীয় মেলায় ৬টি যাত্রপালা ৪৮টি ছায়াবাজী ও সার্কাস পেন্ডলে অশ্লীল ও নগ্ননৃত্য পরিচালনা করে ধর্মীয় পবিত্রতা জলানজ্বলী দিয়ে মেলা কমিটির কতিপয় অর্থ লোলুপ ও চরিত্রহীন ব্যাক্তি প্রশাসনের শর্তভঙ্গ করে যুব-সমাজকে ধবংশের দ্বারপ্রান্তে পৌছে দেওয়ার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়।

সচেতন মহলের অভিযোগের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসন মেলা পরিচালনা কমিটির কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয় কিন্তু কমিটি তোয়াক্কা না করে অশ্লীল ও নগ্ননৃত্য পরিচালনা করে।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের স্মারকনং-১০১০ তারিখ-১৭.১১.২০১৫ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ গোলাম রাব্বী স্বাক্ষরিত পত্র মোতাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ আলম হোসেনের নেতৃত্বে ওসি প্রশাসন মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনের সহযোগিতায় একদল পুলিশ ঐতিহাসিক ঢেমঢেমিয়া কালি মেলায় অভিযান চালিয়ে ধর্মীয় আাচার-অনুষ্ঠানাদি বজায় রেখে অশ্লীল ও নগ্ননৃত্য প্রদর্শিত সকল সার্কাস-যাত্রা-ছায়াবাজী ও দোকানপাট সমুহ (বন্ধ) ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য