সংষ্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুরসংষ্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর অভিযোগ করে  বলেন, এদেশে যারা মুক্তিযুদ্ধ, অসাম্প্রদায়িকতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে তাদের হত্যা করা হচ্ছে। এসব হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে। তিনি আজ শুক্রবার দুপুরে নীলফামারী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

এসময় দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। বঙ্গবন্ধু সাধারণ মানুষের জন্য রাজনীতি করে নিজের জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন। আমাদের এমন কোন আচার-আচরণ বা কোন কর্মকান্ড করা যাবেনা যাতে সাধারণ মানুষ আমাদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নেন। সংষ্কৃতিমন্ত্রী আরো বলেন, রাজনীতিবিদরা রাজনীতি করেন দেশের সাধারণ মানুষের জন্য।

অথচ বিএনপি জামায়াত রাজনীতির নামে বাসের হেলপার, রিক্সাওয়ালাসহ অনেক সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে। এই হত্যার রাজনীতি থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে। মন্ত্রী আরো বলেন, ২০০১ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত বিএনপি জামায়াত দেশের অর্থনৈতিক মেরুদ- ভেঙ্গে দিযেছিলো। তারা উন্নয়ন না করে লুটপাট, জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদের রাজত্ব কায়েম করেছিলো।

সেখান থেকে দেশকে বাঁচাতে শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরেছিলো। এখন দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। সমৃদ্ধি ফিরে আসছে। সারা বিশ্ব এখন বাংলাদেশের দিকে তাকিয়ে আছে। আমরা এখন পোশাক রপ্তানীতে বিশ্বের দ্বিতীয় এবং ধান উৎপাদনে ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছি।

জেলা যুবলীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট রমেন্দ্র বর্ধণ বাপীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মমতাজুল হক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আলীমুদ্দিন বসুনিয়া, সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মুশফিকুল ইসলাম রিন্টু, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীদ মাহমুদ, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট অক্ষয় কুমার, জেলা মহিলা যুবলীগের সভানেত্রী আরিফা সুলতানা লাভলী প্রমুখ। সবশেষে শহীদ মিনার থেকে একটি বর্ন্যাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য