রাশিয়ায় এস-৩০০ পরিচালনার প্রশিক্ষণ নিচ্ছে ইরানআন্তর্জাতিক: ইরান চলতি বছরের শেষ নাগাদ রুশ নির্মিত এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান। তিনি বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা সরবরাহের চুক্তি বাস্তবায়নের সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। আগামী দুই মাসেরও কম সময়ের মধ্যে এই ব্যবস্থার ‘বেশিরভাগ অংশ’ গ্রহণ করবে তেহরান।

আজ তেহরানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে দেহকান আরো বলেন, ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর একটি দল বর্তমানে রাশিয়ায় এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পরিচালনার প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। রাশিয়ার কাছ থেকে ইরান কবে নাগাদ এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে- এ সংক্রান্ত এক প্রশ্নের উত্তরে জেনারেল দেহকান এসব কথা বলেন।

এর আগে সোমবার রাশিয়ার রিয়া নোভোস্তি সংবাদ সংস্থা দেশটির রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সমরাস্ত্র ও প্রযুক্তি সংক্রান্ত গ্রুপ রোস্তেক-এর প্রধান নির্বাহী সের্গেই চেমেযোভের বরাত দিয়ে জানিয়েছিল, বহু প্রতীক্ষিত এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহের জন্য তেহরান ও মস্কো চূড়ান্ত চুক্তি সই করেছে।

ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আজ আরো বলেছেন, তার দেশ এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার জন্য প্রয়োজনীয় যথেষ্ট পরিমান ব্যাটারি সংগ্রহ করেছে।

এই ব্যবস্থা সরবরাহের জন্য ইরান ও রাশিয়া প্রথম সমঝোতা চুক্তি সই করে ২০০৭ সালে। কিন্তু জাতিসংঘের এক নিষেধাজ্ঞার অজুহাত দেখিয়ে ২০১০ সালে রাশিয়া এই চুক্তি স্থগিত করে দেয়। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এক ডিক্রি জারি করে এই ব্যবস্থা ইরানকে সরবরাহের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য