Syedpur Mapসৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে চিকলী নদীর তীর প্রতিরক্ষামূলক কাজ করা হচ্ছে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে। গত ২ নভেম্বর এ কাজের শুভ উদ্বোধন করা হয়। বদরগঞ্জ থানার রাধানগর ইউনিয়নের মন্ডলপাড়া এলাকায় চিকলী নদীর তীর প্রতিবছর বন্যায় ভেঙ্গে যায়। ফলে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে পারে না এলাকার হাজার হাজার মানুষ। এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবী ছিল নদীর ওই তীর রক্ষা করা। কিন্তু দীর্ঘ দিনেও তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি।

অবশেষে সৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধিনে ওই নদীর তীর প্রতিরক্ষামূলক কাজের টেন্ডার হয়। ওই কাজ পান নওগা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান জুয়েল ইলেকট্রনিক্স। সরকারের নিয়মানুযায়ী এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে ঠিকাদার নিয়ম মাফিক ভাবে কাজ শুরু করেন। এক কিলোমিটার নদীর তীর রক্ষণের কাজ করা হবে। ওই কাজে ব্যয় হবে ৪ কোটি টাকা। সিডিউল অনুযায়ী কাজ শুরু করা হলে ওই এলাকার অনেক মানুষ আনন্দে মেতে ওঠেন।

নদীর পাড় রক্ষার কাজ হচ্ছে তাদের চলাচলে দূর্ভোগ থাকবে না এ আনন্দে তারা বিভোর। কিন্তু কাজ শুরু না হতেই ওই এলাকার কতিপয় অসাধু ব্যক্তি নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য নিয়ম মাসিক কাজ হচ্ছে না এমন অভিযোগ এনে জোর পূর্বক সরকারী কাজে ব্যাঘাত ঘটায়। নদীর তীর প্রতিরক্ষা মূলক কাজে উন্নত মানের পাথর, বালু, সিমেন্টসহ অন্যান্য মালামাল ব্যবহার করা হচ্ছে এমন তথ্য পাওয়া যায় এলাকাবাসীর অনেকের কাছ থেকে।

কাজ সম্পর্কে কথা বলেন, সৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডে সাব ডিভিশন ইঞ্জিনিয়ার (এসডি) আবু রায়হান, সাব এ্যাসিষ্টেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মোফাখারুল ইসলাম, কার্যসহকারী ওয়াহেদ আলী বসুনিয়ার সাথে। তারা বলেন, সিডিউল এর বাইরে কাজ করার কোন সুযোগ নেই। কাজ সম্পন্ন হলে তার ব্লক বুয়েটে পরীক্ষার পর কাজের বিল ছাড় দেয়া হবে। যার কারণে কাজের মধ্যে কোন ফাঁকিরও সুযোগ নেই। এ ব্যাপারে ঠিকাদার জানান, কাজ করা হচ্ছে নিয়মানুযায়ী। এখানে নিম্নমানের ব্লক তৈরী করা হচ্ছে না। এলাকাবাসী বসে থেকে কাজ দেখা শুনা করছেন। কিন্তু তারপরও কতিপয় ব্যক্তি গায়ের জোরে সরকারী কাজে বাঁধা সৃষ্টি করছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য