চুরিএলাকাবাসীসহ সামাজিক সংগঠন কর্তৃক পুলিশের এসআইয়ের সংবর্ধণার অনুষ্ঠানে এলাকায় আর কোন চুরি হবে না ওসির এমন ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক ভাবে সভামঞ্চে ছুটে এসে উপজেলার যুবলীগের সহসভাপতি ও বীরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজে প্রভাষক মোঃ আমিনুল ইসলাম মিন্টু জানায়, এই মাত্র তার বাড়ীর জানালা ভেঙ্গে একটি কম্পিউটার নিয়ে পালিয়ে গেছে চোরেরা।

রবিবার রাত ৭টার দিকে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌর শহরের ৭নং ওয়ার্ডের উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন বসুন্ধরা সোসাইটি নামে একটি সামাজিক সংগঠন আয়োজিত বীরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ সফিউর রহমানের এ সংবর্ধণা অনুষ্ঠান চলাকালে এ ঘটনা ঘটে ।

চোরের হাত থেকে সাহসিকতার সাথে মটরসাইকেল উদ্ধার করায় এসআই মোঃ সফিউর রহমানকে এ সংবর্ধণা দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠান চলাকালে মঞ্চের পাশেই প্রভাষক আমিনুল ইসলাম মিন্টুর বাড়ী থেকে একটি কম্পিউটার চুরি করে পালিয়ে যায় অজ্ঞাত চোরেরা। তার বাড়ী থেকে ওই সংবর্ধণা অনুষ্ঠানের বিদ্যুৎ সংযোগও দেওয়া হয়েছিল।

বসুন্ধরা সোসাইটির সভাপতি ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ও নিজপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ প্রভাষক রফিকুল ইসলাম আসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বীগঞ্জ সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার সুজন সরকার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বীরগঞ্জ থানার ওসি প্রশাসন মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, ভোগনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব বদিউজ্জামান পান্না।

এসময় প্রশিক্ষণার্থী দুই সহকারী পুলিশ সুপারসহ পুলিশের কর্মকর্তা ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আয়োজক কমিটির সদস্য ও সাতোর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল করিম শেখ জানান, সাম্প্রতিককালে মটরসাইকেল চুরি সময় এসআই মোঃ সফিউর রহমান সাহসিক ভূমিকায় চোরের হাত থেকে দুইটি মটরসাইকেল রক্ষা পায়। এ কারণে বীরগঞ্জ পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের বসুন্ধরা সোসাইটির আয়োজনে এলাকাবাসীর সহযোগীতায় এসআই সফিউরকে রবিবার সন্ধ্যায় সংবর্ধণা প্রদান করেন।

বীরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের জানান, এ ব্যাপারে আমিনুল ইসলাম মিন্টু বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলা নম্বর-২। তারিখ-২/১১/১৫।

পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে পৌর শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে নীলফামারী জেলার কালীগঞ্জ থানার দলগ্রামের জহির উদ্দিনের পুত্র মোঃ ইমরান হোসেন (৩৫), বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের উত্তর জগদল গ্রামের মোঃ মোফাজ্জল হোসেনের পুত্র মোঃ মিলন (২০), একই এলাকার দীনেশ রায়ের পুত্র নয়ন রায় (১৯)কে আটক করেছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য