SAM_0779 copyস্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ ও ঐতিহ্যবাহী বেসরকারী কলেজ কাদের বকস মেমোরিয়া কলেজ (কেবিএম কলেজ) এর রজত জয়েন্তি উপলক্ষে কলেজে সাজ সাজ রব পরেছে। আগামী ১৭ ডিসেম্বর’১৫ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এই কলেজের ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান।

দিনাজপুর সদর উপজেলার ৬নং আউলিপুর ইউনিয়নের মাহামুদপুর মৌজায় ১৯৬৫ সালে ১৫.১২ একর জমির উপর কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। দিনাজপুর শহরের সন্নিকটে দিনাজপুর রামসাগর সড়কের পার্শ্বে মনোরম পরিবেশে এই কলেজটি অবস্থিত। প্রতিষ্ঠার পর থেকে আজ পর্যন্ত কলেজটি সুনামের সাথে অত্যাঞ্চলের শিক্ষা বিস্তার করে যাচ্ছে। বর্তমানে এই কলেজে একাদশ শ্রেণী থেকে অনার্স পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ হাজার ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়ন করে আসছে। বর্তমানে কলেজে শিক্ষক রয়েছেন ৭৮ জন এবং কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন ২৫ জন। কলেজের অধ্যক্ষ বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুদ্দিন আখতার জানান, বর্তমানে দিনাজপুর জেলায় এই প্রথম এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনে বিবিএ কোর্স চালু রয়েছে। এছাড়াও কলেজে প্রাণীবিদ্যা, উদ্ভিত বিজ্ঞান, রাষ্ট্র বিজ্ঞান, ইসলামের ইতিহাস, সমাজ বিজ্ঞান, অর্থনীতি, বাংলা, ইংরেজী, ব্যবস্থাপনা ও হিসাব বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু রয়েছে।

তিনি জানান, ২০০৯ সালের আগ পর্যন্ত কলেজের উন্নয়নের ছোঁয়া খুব একটা না লাগলেও হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে কলেজের সকল ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। হুইপ ইকবালুর রহিমের নির্দেশনায় বর্তমান অধ্যক্ষ সাইফুদ্দিন আখতারের অক্লান্ত পরিশ্রমে কলেজটি একটি শক্ত ভিতের উপর দাঁড়িয়েছে। এই সময়ের মধ্যে কলেজের প্রধান গেট নির্মাণ, মরাল স্থাপন শ্রীবৃদ্ধি করণসহ সাইকেল স্ট্যান্ড সেড নির্মাণ, পুকুর পূনর খনন, কলেজের পরিত্যাক্ত জায়গায় একটি বিশাল আম ও লিচুর বাগান শৃজন করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে নির্মাণ করা হয়েছে আভ্যান্তরিন সংযোগ সড়ক এবং কলেজের সৌচাগার সমূহের আধুনিকরণ করা হয়েছে।

এছাড়া কলেজে ১২-১৩ অর্থ বছরে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ব্যবস্থাপনায় নির্মাণ করা হয়েছে। একটি সুন্দর দ্বিতল ভবনের একাডেমীক এম. আব্দুর রহিম ভবন। শিক্ষার মান উন্নয়নে গ্রহণ করা হয়েছে। ব্যাপক কর্মসূচী। এসময়ের মধ্যে কলেজের বিভিন্ন বোর্ড ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিক্ষায় সন্তোষজনক ফলাফল লাভ করেছে। গত বছর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনে অনুষ্ঠিত পরিক্ষায় বিএসসিতে ৩ জন শিক্ষার্থী প্রথম বিভাগে উত্তির্ণ হয়েছে। এছাড়াও একই বছরে অনার্স পর্যায়ে উদ্ভিত বিজ্ঞানে ২২ জন, প্রাণী বিজ্ঞানে ২ জন, সমাজ বিজ্ঞানে ৯ জন, রাষ্ট্র বিজ্ঞানে ৬ জন এবং ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৫ জন শিক্ষার্থী ১ম শ্রেণী পেয়েছে। কলেজ অধ্যক্ষ জনান ১৭ ডিসেম্বর কলেজের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে প্রাক্তন ও অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের নিবন্ধনের কার্যক্রম চলছে। প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য নিবন্ধন ফি ধার্য্য করা হয়েছে ৫শ টাকা এবং অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ৩০০ টাকা।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য