Shaheb dinajpur pic 23-10-15ডেক্স রিপোর্টঃ অযৌক্তিক, আইনের সাথে সাংঘর্ষিক ও হস্তান্তরিত দপ্তরের আর্থিক ক্ষমতার উপর সুষ্পষ্ট হস্তক্ষেপ, বিকেন্দ্রীকরণের নামে ক্ষমতা কেন্দ্রীকরণের প্রতিবাদে দিনাজপুরে হ্ইুপ ইকবালুর রহিম এমপি বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করেছে সদর উপজেলা পরিষদের ১৬ দপ্তরের কর্মকর্তারা।

সারাদেশব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ২৩ অক্টোবর শুক্রবার সকালে শহরের নাজমা-রহিম ফাউন্ডেশনে উক্ত স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। স্বারকলিপিতে ১৬ দপ্তরের কর্মকর্তারা উল্লেখ করেছেন, গত ১৪ অক্টোবর মন্ত্রি পরিষদ বিভাগ একটি অফিস স্বারক এর পরিপত্রে উপজেলা পরিষদে হস্তান্তরিত ১৬টি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের যৌথ স্বাক্ষরে তাদের বেতন-ভাতাদি উত্তোলন করবেন। সেই সাথে পরিষদের হিসাব-নিকাশ পরিচালনা জন্য সহকারি কমিশনার (ভূমি) কে সহকারি কমিশনার (অর্থ) পদে অতিরিক্ত দায়িত্ব প্রদান করা হবে বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। যা অত্যন্ত অযৌক্তিক, আইনের সাথে সাংঘর্ষিক ও হস্তান্তরিত দপ্তরের আর্থিক ক্ষমতার উপর সুষ্পষ্ট হস্তক্ষেপ এবং ক্ষমতার বিকেন্দ্রীরকরণের নামে ক্ষমতা কেন্দ্রীকরণের একটি ঔপনিবেশিক প্রয়াস বলে কর্মকর্তারা-কর্মচারীরা মনে করেন।

এব্যাপারে তাঁরা স্বারকলিপিতে তথ্য-উপাত্ত ও যুক্তি স্বরূপ করেছেন যে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভিশন ২০২১ বাস্তবায়ন, ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রূপান্তরিত করা একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এ পদক্ষেপ বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় সরকার সাফল্যেও গৌরবময় স্বাক্ষর রাখছেন। বিসিএস (কৃষি, স্বাস্থ্য, পরিববার-পরিকল্পনা, প্রাণিসম্পদ, মৎস্য) ক্যাডারের কর্মকর্তাগণসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ এ সাফল্যে তাৎপর্যপূর্ণ অংশীদার বলে তারা স্বারকলিপিতে উল্লেখ করেন। আরও উল্লেখ করেন যে, মন্ত্রি পরিষদ কর্র্তৃক গৃহীত উক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে কাজের স্বাভাবিক পরিবেশ বিঘিœত হবে এবং নৈরাজ্যমুলক পরিস্থিতি সৃষ্টির আশংকা রয়েছে।

তারা বলেন, সরকারের মধ্যে লুকিয়ে থাকা কিছু ষড়যন্ত্রকারি ও চাটুকার সরকারকে বেকায়দায় ফেলানোর জন্য এবং রাষ্ট্রকে অকার্যকর রাষ্ট্রে রূপান্তর করতে মদদ দিচ্ছে। তাঁরা স্বারকলিপির মাধ্যমে গণতন্ত্রের মানসকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নীল ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে জাতীয় বেতনস্কেলে সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেল পুনর্বহালসহ মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের ১৪ অক্টোবর জারিকৃত পরিপত্রটি বাতিলের জন্য অনুরোধ জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা কৃষি কর্মকতা মো. মাতলুবুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. ইমদাদুল আলম, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো. শাহীজুল ইসলাম, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. মাইনুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আলতাফ হোসেনসহ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী কর্মকর্তা, উপজেলা প্রকৌশলী, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা, সমবায় কর্মকর্তা, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, শিক্ষা অফিসার, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, বন/রেঞ্জ কর্মকর্তা।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য