Azharআজহার ইমাম: বিরামপুর, দিনাজপুরঃ দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় বর্তমান সরকারের সাফল্য, উন্নয়নে  টুয়েন্টি,টুয়েন্টি ওয়ান ভিশন বাস্তবায়ন উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে গতকাল বুধবার দুপুরে জেলা তথ্য অফিস আয়োজনে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় জেলা তথ্য কর্মকর্তা আবুল কালাম সামসুদ্দিন প্রেস ব্রিফিংয়ের কপি স্থানীয় ইলেকট্রনিক ও জাতীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন।

উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার মধ্যে শিক্ষা,স্বাস্থ্য, যোগাযোগ ব্যবস্থা,অবকাঠামো, কৃষি,
ও বিদ্যুৎ সহ  বিভিন্ন খাতে বর্তমান সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।

শিক্ষা খাতেঃ 
বিরামপুর উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভর্তির হার শতভাগ। প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে ৫৯০.৪৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১৯টি ভবন নির্মান করা হয়েছে । এছাড়া ৮৮ হাজার ৫ শত ৮৪জন গরীব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর মাঝে ২ কোটি ৩৪ লক্ষ ৮২ হাজার ৩ শত ২৫ টাকা উপবৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।

মাধ্যমিক স্কুলে  সকল ছাত্র-ছাত্রীর মাঝে বিনামূলে বই বিতরণ সহ ৩২ হাজার ৫ শত ৬জন ছাত্র-ছাত্রীকে ২ কোটি ২ লক্ষ ১১  হাজার ৫ শত ৮০ টাকা উপবৃত্তি প্রদান সহ উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে ২ হাজার ৯৪ জন ছাত্রীকে ৬৬ লক্ষ ৭০ হাজার ৫ শত ৫০ টাকা ও স্নাতক পর্যায়ে ৫শত ৭২জন ছাত্রীকে ৩২ লক্ষ ১৪ হাজার ৬ শত ৪০ টাকা সহ  মোট ৩ কোটি ৯৬ হাজার ৭শত ৭০ টাকা উপবৃত্তি প্রদান করা হয়। এছাড়া বিরামপুর ডিগ্রী কলেজে অনার্স কোর্স চালু করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য সেবাঃ
স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত কল্পে বিরামপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩২ শষ্যা থেকে ৫০ শষ্যায় উন্নতি করা হয়েছে। প্রশাসনিক অনুমোদন, জনবল অবকাঠামো, আসবাব পত্র ৫০ শষ্যা গ্রহন করা হবে। এছাড়া প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হচ্ছে। বর্তমানে বিরামপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৯ জন ডাক্তার রয়েছে।

যোগাযোগ অবকাঠামাঃ
গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষনাবেক্ষনের আওতায় ৩ হাজার ৫ শত ৪৯ মেট্রিকটন খাদ্য শষ্যের বিনিময়ে বিভিন্ন রাস্তা ও অন্যান্য সমাজিক প্রতিষ্ঠান সংস্কার করা হয়েছে। সেতু কালভাট প্রকল্পে ১ কোটি ৯৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১২টি সেতু কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে।

একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পের মাধ্যমে উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের ৩হাজার ৩শত ৯১জন সদস্যের মাঝে ৩ কোটি ৯৮ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকা ঋন প্রদান করা হয়।  যুব উন্নয়নের দপ্তরের মাধ্যমে ২ হাজার ৬২জন যুবককে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে ও প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত যুবকদের মাঝে আত্মকর্মস্থানের লক্ষে ৮শত ৪০জনকে ৫৭ লক্ষ ৯০ হাজার টাকার ঋণ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া পল্লী দারিদ্রবিমোচন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ক্ষুদ্র  উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষে ৮০জনকে বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণ ও ৪ হাজার ৭ শত জনকে ২৪ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকার ঋণ প্রদান করা হয়েছে।

নারী ও শিশু উন্নয়নে সরকার উপজেলার ৪শ ৯০জন দরিদ্র মাকে মাসিক ৫ শত টাকা মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান করা হয়। ৭ হাজার ৪শ ২জন নারীকে ভিজিডি কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ৩০ কেজি করে চাল দেওয়া হয় এবং মহিলাদের আত্মকর্মস্থানের জন্য ৩৭জনের মাঝে ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার ঋণ প্রদান করা হয়েছে। নারী উন্নয়নের লক্ষে ৩৫ সদস্যের একটি নারী উন্নয়ন ফোরাম গঠন করা হয়েছে।

কৃষিখাতেঃ
কৃষিখাতে ৫শ ২১জন কৃষকের মাঝে ৭লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ব্যয় করে  উন্নতমানের বীজ উৎপাদন ও বিতরণ করা হয়েছে। মৎস খাতে বিভিন্ন জলাশয়ে ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে পোনামাছ অবমুক্ত করা হয়। এবং জেলেদের পরিচয় পত্র প্রদান করা হয়েছে।

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যানে ২৩৫জন মুক্তিযোদ্ধাকে ৮ হাজার টাকা মাসিক সম্মানি  প্রদান করা হয়।
সমাজসেবার আওতায় ৩হাজার ৫শ ৬৬ জনকে ৪শ টাকা করে বয়স্ক ভাতা এবং ২ হাজার ৫৪জনকে মাসিক ৪শ টাকা হারে প্রতিবন্ধি ভাতা প্রদান করা হয়েছে।

বিদ্যুৎ খাতেঃ
বিদ্যুৎ খাতে সরকারের সাফল্য ৮৪.৪৫ কি:মি মিটার নতুন বিদ্যুৎ লাইন সংযোগ হয়েছে। এতে করে বিভিন্ন এলাকায় ১৫ হাজার ১শ  ৪৪টি পরিবাররে বিদ্যুৎ সংযোগ এবং ৯৭টি সেচ পাম্পে  সংযোগ দেওয়া হয়েছে।

ভূমিহীনঃ
ভূমি ও গৃহহীন মানুষের আর্থ সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে ৩শ ৫৪টি পরিবারের মাঝে ৪৬.৮৩ একর খাসজমি বন্দোব্যস্ত করে দেয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত  ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান পারভেজ কবীর, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস.এম মনিরুজ্জামান আল মাসউদ সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার গণমাধ্যম কর্মীরা প্রেস ব্রিফিং এ অংশ গ্রহন করে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য