fencidile4মোঃ রজব আলী, ফুলবাড়ীঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী থানার এক এএসআই এর বিরেুদ্ধে জব্দকৃত ফেন্সিডিল আত্মসাতের অফিযোগ করেছে, ফেন্সিডিল আটক কাজে পুলিশের সহয়তাকারী বাবুল হোসেন নামে এক গ্রামবাসী।

উপজেলার উত্তর লক্ষিপুর গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলীে ছেলে বাবুল হোসেন গত বৃহস্পতিবার, দিনাজপুর পুলিশ সুপার, এএসপি (ফুলবাড়ী সার্কেল) ও ফুলবাড়ী থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ এর নিকট এই লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগকারী বাবুল হোসেন জানায়, চলতি সনের গত ২৩ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে, ফুলবাড়ী থানার এএসআই শামিম মন্ডল ও তার সাথে থাকা সঙ্গিয় ফোর্স, সে সহ পার্শবর্তি গ্রাম গড়পিং লাই গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে শরিফুল ইসলামকে সাথে নিয়ে উত্তর লক্ষিপুর বাজারের সন্নিকটে বাগধারার মোড়ে, বাশবাড়ী একটি গোপন স্থান থেকে ২৫০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে।

এসময় এএসআই শামিম মন্ডল পুলিশের কাজে সহয়তা করার সুবাদে, মোটা অংকের বকশিস দেয়ার কথা বলে, ৬০ বোতল ফেন্সিডিল তাদের নিকট জমা রেখে ১৯০ বোতল ফেন্সিডিল নিয়ে আসে, এর পরের দিন পৌরশহরের এক চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীকে সাথে নিয়ে গিয়ে, তাদের নিকট জমা রাখা বাকি ৬০ বোতল ফেন্সিডিল নিয়ে আসে এবং বকশিস হিসাবে ৪০০০ টাকা দিয়ে আসে ও আরো ৫০০০ টাকা দেয়ার অঙ্গিকার করে, কিন্তু সময়মত বাকি টাকা না দেয়ায়, তারা আবারো থানায় খোজ নিতে আসলে জানতে পারে, গত ২৩ সেপ্টেম্বর রাতে আটক হওয়া কোন ফেন্সিডিল এএসআই শামিম থানায় জমা দেয়নি। পরে এএসআই শামিম এর সাথে তারা যোগাযোগ করলে, তাদেরকে এএসআই শামিম বলে সব ফেন্সিডিল উপরে দেয়া হয়েছে, এতে তাদের সন্দেহ হলে, ফেন্সিডিল আটক কাজে সহয়তাকারী বাবুল এই লিখিত অভিযোগ করেন।

এই বিষয়ে এএসআই শামিম এর সাথে কথা বললে, তিনি বলেন, অভিযোগকারী আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। এই ঘটনায় ফুলবাড়ী থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গত ২৩ সেপ্টেম্বর আটক হওয়ায় কোন ফেন্সিডিল এএসআই শামিম থানায় জমা দেয়নি এবং ফেন্সিডিল আটক হওয়ায় কোন ঘটনাও থানায় জানায়নি। তবে তিনি অভিযোগ পাওয়ায়র কথা স্বীকার করেন।

ফুলবাড়ী সার্কেল এসপি ফয়জুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন অফিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে ঘটনাটি ফুলবাড়ীর টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে এবং ঘটনাকে কেন্দ্র করে থানা পুলিশের মধ্যে বিব্রতকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য