Nirjaton Rapeঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দক্ষিণ দুয়ারী জিয়াবাড়ী গ্রামে জৈনেক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর গৃহবধুকে ধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের।

মামলার সূত্রে জানাগেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়পলাশবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ দুয়ারী জিয়াবাড়ী গ্রামের জৈনেক এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর স্ত্রী (৩২) প্রতিদিনের ন্যায় গত ১৭ সেপ্টম্বর রাত ১০টায় ঘরের দরজায় সিটকিনী দিয়ে সে শুয়ে পরলে ওইসময় গৃহকতার অনুপস্থিতির সুযোগে একই গ্রামের মরহুম খতিব উদ্দিনের ছেলে কাইমুল (৪২) তার ঘরের দরজার সিটকিনী কৌশলে খুলে প্রবেশ করে গৃহবধুকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে।

ওইসময় গৃহবুধুর আত্মচিৎকারে পার্শের ঘর থেকে তার সৎ ছেলে বেলাল হোসেন ঘটনাস্থলে এগিয়ে এলে ধর্ষক কাইমুলকে হাতেনাতে ধৃত করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে ধর্ষকের পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে এসে ধর্ষককে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ধর্ষিতা গৃহবধু স্থানীয় থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে পুলিশ তার অভিযোগ গ্রহণ না করায় পরদিন বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালত, ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষকসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

মামলার প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক উক্ত ঘটনার তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বালিয়াডাঙ্গী থানার অফিসার ইনচার্জকে আদেশ দিলে তদন্ত শেষে স্থানীয় থানায় ধর্ষিতা গৃহবধুর মামলাটি রুজু করে। যাহার মামলা নং-০১, তারিখ গত ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ইং। ধারা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সালের ( সংশোধনী/০৩) এর ৯(১)/৩০ ধারাসহ ৩২৩/৩০৭ পি.সি।। পুলিশ ভিকটিম গৃহবধুকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের চিকিৎসকের নিকট প্রেরণ করলে সেখানে তার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়।

এদিকে ধর্ষণ মামলা করার দির্ঘ্যদিন অতিবাহিত হলেও আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ রহস্যজনক কারনে কাউকে এযাবত গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি। অপরদিকে মামলার আসামীরাসহ তাদের লোকজন বাদী পক্ষের লোকজনকে মামলাটি প্রত্যাহারসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকী অব্যাহত রেখেছে বলে এলাকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে।
[ads1]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য