8+googleপ্রাইভেসি আইন শুধু ইউরোপে সীমাবদ্ধ করতে গুগলের করা আবেদন ফ্রান্সে বাতিল করা হয়েছে। দেশটির ডেটা সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ সোমবার এ আবেদন প্রত্যাখান করে। ২০১৪ সালে ইউরোপের উচ্চ আদালতের এক রায়ে বলা হয়, ইউরোপের যে কেউ চাইলে তাদের সম্পর্কিত যেকোনো কনটেন্টের লিঙ্ক সার্চ ইঞ্জিনগুলোকে সরাতে বলতে পারবে। আর সার্চ ইঞ্জিনগুলোও এ লিঙ্ক সরাতে বাধ্য থাকবে। এ রায়ের বিপরীতেই গুগল এ আবেদন করেছিল।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, গুগলের সার্চ ডোমেইনগুলোতে ‘রাইট টু বি ফরগটেন’ ফিচার রাখতে হবে বলে দাবি করেছে ফ্রান্সসহ বেশকিছু ইউরোপীয় প্রাইভেসি রেগুলেটরি কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে, এই আইন শুধু এড়ড়মষব.ফব আর এড়ড়মষব.ভৎ-এর  মতো ইউরোপীয় ওয়েবসাইটগুলোতেই মানা উচিত বলে দাবি এ ওয়েব জায়ান্টের। আর ফরাসি প্রাইভেসি ওয়াচডগ জানিয়েছে, গুগলকে তাদের সব ডোমেইনের ক্ষেত্রে এ সিদ্ধান্ত বহাল রাখতে হবে, শুধু ইউরোপেই নয়। ফ্রান্সের এমন সিদ্ধান্ত অন্যান্য দেশগুলোকেও একই পদক্ষেপ নিতে উৎসাহিত করবে বলে মনে করে গুগল। একে বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেট অ্যাকসেস নিয়ন্ত্রণ আনার চেষ্টা হিসেবে দেখছে প্রতিষ্ঠানটি।

এক বিবৃতিতে ফরাসি কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বলা হয়, “এটি শুধু ইউরোপে অইউরোপিয়দের সেবা কার্যক্রমে ইউরোপীয় আইন প্রণয়নকারীদের পূর্ণ পর্যবেক্ষণ রাখতে সহায়তা করবে।” এ সিদ্ধান্ত না মানলে প্রতিষ্ঠানটিকে মোট ৩ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলারের মতো জরিমানা গুণতে হতে পারে। আরেকটি প্রাইভেসি আইনের কারণে ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠানটিকে ১ লাখ ৭০ হাজার ডলার জরিমানা দিতে হয়।

চলতি বছর জুলাইয়ে এক বিবৃতিতে গুগলের বৈশ্বিক গ্লোবাল প্রাইভেসি পরামর্শক পিটার ফ্লেইশ্চার জানান, ‘কোনো দেশেরই অন্য দেশের জন্য রাখা অনলাইন কনটেন্ট নিয়ন্ত্রণ করা উচিত নয়।’ ইউরোপের যেকোনো দেশের চেয়ে ফ্রান্সে এ নিয়ে সবচেয়ে বেশি আবেদন এসেছে বলে ট্রান্সপারেন্সি রিপোর্টে জানিয়েছে গুগল। সেখানে ২ লাখ ২০ হাজার কন্টেন্টের উপর ৬৬ হাজার আবেদন পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে তারা।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য