কাশ্মিরে গরুর গোশত নিষিদ্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভগরুর গোশত বিক্রি নিষিদ্ধ করার প্রতিবাদে জম্মু-কাশ্মিরের গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগরে ব্যাপক বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার জুমা নামাজ শেষে হুররিয়াত কনফারেন্স নেতা মীরওয়াইজ ওমর ফারুকের সমর্থকরা রাস্তায় নেমে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখায়। পরে এই বিক্ষোভ হিংসাত্মক হয়ে ওঠে। বিক্ষোভকারীরা পাকিস্তানের পতাকা ওড়ানোর পাশাপাশি সেদেশের সমর্থনে স্লোগান দেয়। এ সময় বিক্ষোভকারী ও পুলিশের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ বেঁধে যায়। পুলিশ উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ তরে এবং কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায়।

সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মির হাইকোর্ট এক মামলার রায়ে গরুর গোশত বিক্রি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করে। এর প্রতিবাদ জানাতে হুররিয়াত কনফারেন্সের পক্ষ থেকে গত শনিবার সর্বাত্মক বনধ পালন করা হয়। বনধকে সমর্থন জানান জেকেএলএফ চেয়ারম্যান ইয়াসীন মালিক এবং হুররিয়াতের অন্য অংশের চেয়ারম্যান মীরওয়াইজ ওমর ফারুকসহ অন্য কাশ্মীরি নেতারা।

কাশ্মির বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক আফজল কাদরি হাইকোর্টে এক পিটিশন দায়ের করে রণবীর দণ্ডবিধি (আরপিসি) ধারা ২৯৮-এ এবং ২৯৮-বি এর সাংবিধানিক বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। বহু প্রাচীন এই আইনের ধারা বলে রাজ্যে গরুর জবাই এবং গরুর গোশত বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

এ দিকে, দেশবিরোধী কাজ করার অভিযোড়ে ‘দুখতারান ই মিল্লাত’ নেত্রী আসিয়া আন্দ্রাবিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে নিজের বাড়িতে পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস পালন এবং সে দেশের পতাকা তোলার অভিযোগ উঠেছে। বেআইনী কার্যক্রম প্রতিরোধ আইনের অধীনে গত ১৭ আগস্ট তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য