Fulbari Mapফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফলবাড়ী উপজেলার বেতদিঘী ইউপির খড়মপুর গ্রামে জোরপূর্বক কবরস্থান দখল করে ক্লাব ঘর নির্মাণ। এলাকাবাসী প্রশাসনের দপ্তরে ও ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট অভিযোগ করলেও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

ফুলবাড়ী উপজেলা বেতদিঘী ইউনিয়নের খড়মপুর গ্রামের মৃত নাসের আলীর পুত্র মোঃ হোসেন আলী এলাকাবাসীর পক্ষ হয়ে তার এক লিখিত অভিযোগে জানা যায়, খড়মপুর মৌজার ১৫৪০ দাগে ২০ শতক জমি ধর্মপ্রাণ মুসলমান ব্যক্তিগণ মারা গেলে সেখানে এলাকার লোকজনকে দাফন করা হয়। কিন্তু সেখানে এলাকার কিছু বখাটে যুবকরা গত ১৫ই আগস্ট শনিবার মোঃ মোতালেব (২৫), মোঃ নজমুল (৩০), মোঃ খোকন (২৭), মোঃ সাইফুল (২৮), মোঃ সেলিম (২৫), মোঃ আইজুল (৩৮), মোঃ নুরুজ্জামান (২৩), মোঃ উজ্জল (২২), মোঃ নজরুল (২৭) সকলের বাড়ি ইউনিয়নের খড়মপুর গ্রামে। তারা দলবদ্ধ হয়ে লাঠিসোটা নিয়ে উক্ত কবরস্থানের জায়গার দখল করে ক্লাব ঘর নির্মাণ করেন।

উক্ত ব্যক্তিরা সেখানে প্রতিদিন মদ, তারি, গাঁজা, ফেন্সিডিলের আসর বসান। মোঃ হোসেন আলী সহ এলাকার লোকজন ক্লাব ঘর নির্মাণে বাধা দিলে তারা বাধা না মেনে ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল কুদ্দুস শাহ্ এর কথা মত ক্লাব ঘর নির্মাণ করেন। উক্ত ক্লাব ঘর নির্মাণ কারী ব্যক্তিরা বাধা দান কারী মোঃ হোসেন আলীকে বলেন ইউপি চেয়ারম্যান ঘর নির্মাণে নিষেধ করলে আমরা চলে যাব। হোসেন আলী তার অভিযোগে বলেন ইউপি চেয়ারম্যান ক্লাব ঘর নির্মাণের জন্য তাদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে খড়মপুর এলাকার শতাধিক ব্যক্তি গণস্বাক্ষর করে ন্যায় বিচারের দাবিতে উপজেলা নির্বাহী বরাবর সহ বিভিন্ন দপ্তরে গত ২০ই আগস্ট অভিযোগ দাখিল করেন। এ ব্যাপারে গত ২১শে আগস্ট উপজেলার বেতদিঘী ইউপির চেয়ারম্যান শাহ্ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান ঐ কবরস্থানটি অযতœ অবহেলায় পড়ে ছিল। আমি আমার লোকজন দিয়ে পরিস্কার করেছি যারা ক্লাব ঘর নির্মাণ করেছে তাদেরকে অন্যত্র এলাকায় জায়গা কিনে ক্লাব ঘর গড়ে দেওয়া হবে। আপাতত তারা সেখানে ক্লাব ঘর তৈরি করে কবরস্থানটি রক্ষনাবেক্ষণ করছেন।

এদিকে মোঃ হোসেন আলী অভিযোগ করে বলেন কবরস্থানের জায়গা দখল করে ক্লাব ঘর নির্মান করছে এ বিষয়ে ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ আবুল কালাম আজাদকে অবগত করেছি। কিন্তু কারও কথা না শুনে তারা জোর পূর্বক ক্লাব ঘর নির্মাণ করেছেন। এ নিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য