Phulbari Tula Chash-22.08.2015ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)  সংবাদাতাঃ ন্যায্য মুল্যের নিশ্চয়তা ও অনান্য ফসলের তুলুনায় অধিক লাভ হওয়ায়, তুলাচাষে ঝুঁকে পড়েছে ফুলবাড়ীর কৃষকেরা। এ বছর এই উপজেলায় ১০০ একর জমিতে তুলা চাষ হয়েছে৷।

গত ২০০৮ সালে মাত্র ১০ একর জমিতে তুলাচাষের মধ্য দিয়ে এই উপজেলায় যাত্রা শুরু হয়ে এ বছর ১০০ একর জমিতে তুলা চাষ হয়েছে৷ ফুলবাড়ীর রাঙ্গামাটি,বারাইপাড়া, মহদিপুর, আকিলাপাড়া,খয়েরবাড়ী এলাকায় ১০০ একর জমিতে তুলাচাষ হয়েছে৷ দিন দিন এই চাষ আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে৷

রাঙ্গামাটি এলাকার তুলাচাষি আবু সাইদ বলেন, তিনি গতবছর ১ একর জমিতে তুলা চাষ করেছিলেন, অনান্য ফসলের তুলুনায়, তুলাচাষ লাভজনক হওয়ায় এই বছর তিনি ৫ একর জমিতে তুলাচাষ করেছেন৷

একই কথা বলেন, একই এলাকার তুলাচাষি নির্মল সেন, অতুল চন্দ্র ও নজরুল ইসলাম৷ তারা প্রত্যককে ৫০ শতক করে জমিতে তুলা চাষ করেছে৷

তুলাচাষিরা জানায়, এক বিঘা জমিতে ধান চাষ করলে ২৫ থেকে ৩০ মণ ধান উত্পাদন হয়, যার বাজার মূল্য ১২ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা কিন্তু এক বিঘা জমিতে তুলাচাষ হয় ১০ থেকে ১২মণ, যার বাজার মুল্য ২৫ হাজার খেতে ৩০ হাজার টাকা৷

ফুলবাড়ী তুলা উন্নায়ন বোডের ইনচার্জ ও কটন ইউনিট কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক বলেন, তুলা উন্নায়ন বোড নামমাত্র সুদে ও সহজ সত্বে, তুলা চাষিদের কৃষিঋন দিয়ে থাকে, আবার কৃষকের নিকট থেকে তুলা উন্নায়ন বোড সরাসরি ন্যায্য মুল্য তুলা খরিদ করে, যার ফলে তুলাচাষিরা তুলার ন্যায্য মুল্য পায়, এজন্য কৃষকেরা তুলা চাষে ঝুঁকে পড়েছে৷
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য