ইয়েমেনে মানবিক পরিস্থিতি ধারণাতীতইয়েমেনের বন্দর নগরী হুদাইদাতে সৌদি আরব যে বর্বরোচিত বোমা হামলা চালিয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ। যুদ্ধবিধ্বস্থ ইয়েমেনের জনগণের জন্য খাদ্য, ওষুধ এবং জ্বালানীর মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য দ্রব্য এই বন্দর নগরী দিয়ে সরবরাহ করা হয়।

মানবাধিকার এবং জরুরী ত্রাণ সমন্বয় বিষয়ক জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল স্টিফেন ও’ব্রাইন গতকাল (বুধবার) নিরাপত্তা পরিষদে বলেন, এই ধরনের বর্বরোচিত হামলা আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের সুষ্পষ্ট লঙ্ঘন এবং অগ্রহণযোগ্য।

হুদাইদা শহরে সৌদি বাহিনীর হামলার কারণে সৃষ্ট ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে তিনি বিষণভাবে উদ্বিগ্ন এই কথা উল্লেখ করে ও’ব্রাইন আরো বলেন, এটি পুরো দেশে মারাত্মক বিরোপ প্রভাব ফেলবে এবং এতে মানবিক পরিস্থিতি আরো অবনতির দিকে যাবে। তিনি আরো বলেন, ইয়েমেনে মানবিক পরিস্থিতি ধারণাতীত। এছাড়া, ‘আমি যা দেখেছি তাতে আমি মর্মাহত হয়েছি’ বলেও জানান ও’ব্রাইন।

ইয়েমেনের সংঘাত অবসানে রাজনৈতিক সমাধান বের করার আহ্বান জানান ও’ব্রাইন। এদিকে, বেশি দেরি হয়ে গেলে সংকট সমাধানে শান্তি আলোচনা আরো জটিল হয়ে উঠবে এবং ফলে সেখানে যুদ্ধ চালানোর মতো আর কিছুই অবশিষ্ট থাকবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

ইয়েমেনের পশ্চিমাঞ্চলীয় হুদাইদা শহরে সৌদি বাহিনী বর্বরোচিত বিমান  হামলা চালানোর ফলে সেখানে মানবিক কার্যক্রমে ব্যবহৃত ত্রাণ পণ্যসামগ্রীর গুদামঘর পুড়ে যাওয়ার পাশাপাশি ক্রেন এবং ট্রাকও ধ্বংস হয়ে গেছে।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য