Hili Mapহাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের হাকিমপুরের ৩ শিক্ষার্থীকে শারিরীক অমানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তদন্তে প্রমানিত হবার পরও নির্যাতন কারী অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না করার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার ইউএনও আজাহারুল ইসলামের উদ্যোগে তাঁর কার্যালয়ে এ তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, উপজেলা পরিষদ শিশু নিকেত ও নিন্ম মাধ্যমিক স্কুলের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র ফারহান হাসিব (রাভিদ) ও ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্র নাঈম ও মোস্তাকিম গত ৯ আগষ্ট স্কুলে প্রাশের প্রাক্কালে ওই স্কুলের প্রধান ফটকের ৩ টি লোহার পাত ভাঙ্গা দেখতে পেয়ে তারা বিষয়টি অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম শুভকে অবগত করেন।

এসময় অধ্যক্ষ সন্দেহের বসে ওই তিন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে পাতগুলি ভাঙ্গার অভিযোগ এনে তাদেরকে পার্শবর্তী একটি কক্ষে নিয়ে গিয়ে জানালা-দরজা বন্ধ করে শারিরীক নির্যাতন চালিয়ে আহত করেন। এদের মধ্য রভিদ গুরুতর আহত হওয়ায় তাকে হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

এ অভিযোগে পরদিন রাভিদের পিতা আকতার হোসেন ৩ শিক্ষার্থীর পক্ষে অধ্যক্ষ শুভর অপসারনসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে হাকিমপুর ইউএনও ও স্কুলটির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আজাহারুল ইসলামের নিকট অভিযোগ দাখিল করেন।

এ বিষয়ে ইউএনও আজাহারুল ইসলামরে নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, তাকে শাস্তি প্রদানের বিষয়ে প্রসেস চলছে।

অপারদিকে আকতার হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, এহেন ঔদ্ধত্যপূর্ন আচরন করার অভিযোগ প্রমাণিত হরার পরও বৃহস্পতিবার বেলা ৩ পর্যন্ত অজ্ঞাত কারনে তার বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি গ্রহনে কালক্ষেপন করায় তিনি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
[ads1]
[ads2]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য