Fulalরফিকুল ইসলাম ফুলালঃ বর্তমান সরকার জনগনের আকাংখাকে পদদলিত করে নির্বাচন নামক একটি গনতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে ব্যবহার করে ভোটারবিহীন প্রতিদ্বন্ধিতাহীন ভোটের মাধ্যমে তার ক্ষমতার সম্প্রসারন করেছে মুলত দেশী বিদেশী লুটেরা পুজিঁপতি শ্রেণীর স্বার্থ রক্ষার জন্যই, সাধারন মানুষের কাছে আজ এটি পরিস্কার হয়েছে। তাদের ক্ষমতার মোহকে ত্বরানিত্ব করে দেশের কৃষকসহ সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে করেছে নিঃশ্ব ফায়দা লুটেছে ব্যবসায়ী ও পুজিঁবাদী গোষ্ঠির মানুষেরা।

রবিবার বিকেলে গনতান্ত্রিক বাম মোর্চা দিনাজপুর জেলা শাখার আয়োজনে ষ্টেশন চত্ত্বরে আলু চাষীদের ক্ষতিপূরণ,রামপাল বিদুৎ কেন্দ্র বাতিল,সাগরের গ্যাস ব্লক ইজারা বন্ধ, বিদুৎ ও গ্যাসের মুল্যবৃদ্ধির পায়তারা বন্ধ, এবং ভোটারবিহীন প্রতিদ্বন্ধিতাহীন নির্বাচন বাতিল করে অবিলম্বে সকলদলের অংশগ্রহনে গনতান্ত্রিক নির্বাচনের দাবীতে এক জন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাম মোর্চার জেলা সমন্বয়ক সন্তোষ গুপ্তের সভাপতিত্বে জন সভায় বক্তৃতা করেন বাম মোর্চার কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক আব্দুস সাত্তার , বাসদ কেন্দ্রীয় কনভেনশন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য জননেতা শুভ্্রাংশু চক্রবর্তী , বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিষ্ট লীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু , গনসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সদস্য ফিরোজ আহম্মেদ , বাম মোর্চার জেলা নেতা আনোয়ার আলী সরকার , রেজাউল ইসলাম সবুজ ও আবু তাহের প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

জনসভায় বক্তরা আরো বলেছেন , সরকার দেশের মানুষের কল্যানে কোন কাজই করছে না , যা কিছু করছে তাতে পরিস্কার হয়েছে যে কেবল বিদেশী প্রভুদের স্বার্থ রক্ষার মাধ্যমে গদি রক্ষায় সার্বক্ষণিক সময় ব্যয় করে চলেছে।

এই সরকার দেশের প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষাকারী সুন্দরবনকে ধ্বংস করে ভারতীয় স্বার্থ্যরক্ষায় রামপাল বিদুৎ কেন্দ্র স্থাপন করছে। এই বিদুৎ কেন্দ্র স্থাপনে দেশের জনগনের কোন সর্মথন নেই তার পরেও ক্ষমতার দম্ভে সরকারী শক্তি প্রয়োগ করে এই কাজ তারা চালিয়ে আসছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন ,জনগনের ইচ্ছের বিরুদ্ধেও সরকার একের পর এক অন্যায় জুলুম অত্যাচারের মাধ্যমে বিরোধীমতকে দমন করে চলেছে আর এ জন্যে দেশে চালানো হচ্ছে গুম ,খুন ,হত্যা , ক্রসফায়ারের মত ফ্যাসিষ্ট কর্মকান্ড যা গনতান্ত্রিক সরকারের অংশ হতে পারে না।

তাই এখনই জনমত তৈরীর মাধ্যমে এই সরকারের অন্তিম ঘন্টা বাজানোর লক্ষে সকলকে একযোগে জনগনকে সাথে নিয়ে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনতে এখন সম্বনিত আন্দোলন প্রয়োজন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য