Gaibanda mapগাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা জেলায় সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কগুলোতে গত ১ আগষ্ট থেকে পুলিশের বিশেষ অভিযান অব্যাহত থাকায় গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ী, সাদুল্যাপুর ও গাইবান্ধাসহ ৭টি থানায় অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

শহর-বন্দরগুলো এখন যানজটমুক্ত হওয়ায় দুর্ঘটনার আশংকা হ্রাস পেয়েছে। গাইবান্ধা পুলিশ সুপার আশরাফুল ইসলাম জনান, সরকারি নির্দেশ মোতাবেক জাতীয় মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়কে সিএনজি, অটোরিক্সা, বাইক থ্রি-হুইল, পিকআপ ভ্যান, রেজিষ্ট্রি ও লাইসেন্স বিহীন মটর সাইকেল, হুন্ডাসহ বিভিন্ন অবৈধ যানবাহন চলাচল সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং প্রাণহানির ঝুঁকিও বেড়েছে। তাই দেশব্যাপী এসব অবৈধ যানবাহন চলাচলের উপর কড়া নিষেধাজ্ঞার আদেশ জারি হওয়ায় জেলার ৭টি থানায় পুলিশের বিশেষ অভিযান পরিচারিত হচ্ছে।

এতে জাতীয় মহাসড়ক সংযোগ এলাকা গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ী ও সাদুল্যাপুর এবং গাইবান্ধাÑপলাশবাড়ী সড়কে যানজট মুক্ত হওয়ার পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ ব্যবস্থা জোড়দার করা হয়েছে। পুলিশ সুপার আরও উল্লেখ করেন, পুলিশের চোখে ফাঁকি দিয়েও কিছু-কিছু আঞ্চলিক কিংবা সংযোগ সড়কে অবৈধ যানবাহন চলাচল অব্যাহত থাকায় বিশেষ অভিযানের আওতায় চালক ও মালিকদের বিরুদ্ধে মামলাসহ জরিমানার আদেশ দেয়া হয়েছে। এতে সরকারি রাজস্ব খাতে অতিরিক্ত আয় অর্জিত হচ্ছে।

সুত্রের মতে, এই অভিযান নিয়ে সংশ্লিষ্ট মালিক শ্রমিক সংগঠনে ক্ষোভ-অসন্তোষ দেখা দিলেও সংশ্লিষ্ট মালিক-শ্রমিকদের প্রতি সরকারি আদেশের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ও আন্তরিক হাওয়ার আহবান জানিয়েছেন। অন্যদিকে পুলিশের এই বিশেষ অভিযান অব্যাহত থাকায় জেলার সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। নৈরাজ্য হ্রাস পেয়েছে। রাজনৈতিক নাশকতাও চোখে পড়ছে না। জামায়াত-শিবির অধ্যষিত এলাকায় গোপন তৎপরতার কর্মসূচী ও নিধন হওয়ার উপক্রম। এমন মন্তব্য প্রকাশ করেন পুলিশ সুপার আশরাফুল ইসলাম।
[ads1]

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য